bangla news

আমিও একজন সংবাদকর্মী: তথ্যমন্ত্রী 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২৩ ৬:৪৪:৩৮ এএম
বক্তব্য রাখছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: বাংলানিউজ

বক্তব্য রাখছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: বাংলানিউজ

মুন্সিগঞ্জ: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমার সাংবাদিক হিসেবে চাকরি করার সুযোগ না হলেও আমি সংবাদকর্মী হিসেবে কাজ করি ১৬ বছর বয়স থেকে। সাড়ে ১৫ বছর বয়সে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হই। তখন থেকে প্রেস রিলিজ লিখি। রিকশা, সাইকেল ও বাসে চড়ে সেই প্রেস রিলিজ চট্টগ্রাম শহরের পত্রিকার কার্যালয়ে বিলিয়ে আসতাম। সুতরাং আমিও একজন সংবাদকর্মী। 

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) রাতে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা আজকাল অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা দেখতে পাইনা। আমি অনেক প্রতিবেদন দেখি, অনেক পত্রিকার সম্পাদককে ফোনও দিয়েছি। আমি বলি, যিনি প্রতিবেদন করেছেন তিনি অসাধারণ রিপোর্ট করেছেন। প্রতিবেদন পড়ে সম্পাদককে ফোনে বলি- অনেক ভালো প্রতিবেদন হয়েছে। রাস্তার পাশে একজন মানুষ বসে আছে। দুঃখ বেদনার কথা কেউ শোনেনা। কারও শোনার আগ্রহ নেই। তার দিকে তাকানোর কারও সময় নেই। কিন্তু একজন সাংবাদিক আমি পত্রিকার নাম বলতে চাইনা। প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমি সেই মানুষের দুঃখের কথা বুঝতে পেরেছি। আমি সেদিন পত্রিকার প্রতিবেদন পড়ে সেই পত্রিকার সাংবাদিকসহ সেই মানুষকে বাসায় ডেকে এনেছিলাম। 

হাছান মাহমুদ বলেন, অবশ্যই সমালোচনা সমাজে থাকতে হবে। অবশ্যই সরকার ও মন্ত্রীর সমালোচনা হবে। এ সমালোচনাকে সমাদৃত করার সাংস্কৃতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকার লালন করে। আমাকে যখন পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। যেই পত্রিকায় কোথায় পরিবেশ বেশি নষ্ট হচ্ছে, কোথায় সরকার নজর দিচ্ছে না ব্যাপারে আমাকে নিয়ে কার্টুন বানিয়েছে। সেই পত্রিকাকে ডেকে আমি জাতীয় পরিবেশ পদক দিয়েছি। আমি মনে করি, দায়িত্বে থাকেন যিনি তার সমালোচনা হবে। কারণ কোনো মানুষের পক্ষে শতভাগ নির্ভুল কাজ করা সম্ভব না। কোনো সরকারের পক্ষে নির্ভুল কাজ করা সম্ভব না। 

পৃথিবীতে অতীতেও এমন কোনো সরকার ছিল না, ভবিষ্যতেও থাকবে না, যিনি শতভাগ নির্ভুল কাজ করতে পারেন উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ভুল সবার থাকবে, সমালোচনাও থাকবে। কিন্তু কিছু সাংবাদিক বন্ধুর মধ্যে ধারণা আছে ‘বেড নিউজ ইজ গুড নিউজ, গুড নিউজ ইজ নো নিউজ।’ এই মানসিকতা পরিহার করার জন্য বিনীত অনুরোধ সবার কাছে। সরকারের ভুল-ত্রুটি তুলে ধরতে হবে, একইসঙ্গে সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করতে হবে। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, মুন্সিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপিত সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি সাইফুল আলম, জাতীয় প্রেসক্লাব সিনিয়র সহ-সভাপতি বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সাবেক মহাসচিব ওমর ফারুক। 

আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা প্রশাসক (ডিসি) মনিরুজ্জামান তালুকদার, জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম, সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৪৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০১৯
এসআরএস 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মুন্সিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-23 06:44:38