bangla news

ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন কি ভেঙে যাবে খাদিজার!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৯ ৯:১৩:০৭ পিএম
খাদিজা ও তার বাবা-মা

খাদিজা ও তার বাবা-মা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে মেডিক্যাল কলেজের এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় মেধাক্রমে ১৭৮১তম হয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন খাদিজা খাতুন। ভর্তির সুযোগ পেলেও বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ। কোথায় পাবেন অর্থ, কে দেবেন অর্থের যোগান এমন শঙ্কায় দিন কাটছে হতদরিদ্র পরিবারের মেয়ে খাদিজা খাতুনের।

খাদিজা চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার চককীর্তি ইউনিয়নের রাণীবাড়ি গ্রামের হতদরিদ্র  দিনমজুর জালাল উদ্দিন ও জোসনা বেগমের মেয়ে। সাত সন্তানের মধ্যে খাদিজা তৃতীয়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি জালাল উদ্দিনের কোনো জায়গা-জমি নেই। খাস জমিতে রয়েছে বাঁশের বেড়া দিয়ে ঘেরা তিন ঘর বিশিষ্ট ছোট্ট একটি বাড়ি। পরিবারে নুন আনতে পান্তা ফুরায় এরমধ্যে খাদিজার মেডিক্যালে ভর্তি ও পড়ার খরচ যোগানোর সামর্থ্য তার বাবার নেই।   

দিনমজুর জালাল বাংলানিউজকে বলেন, সংসার চালানো যেখানে দায়, সেখানে মেয়ের লেখাপড়ার খরচ আমার কাছে দুঃস্বপ্ন। তবে স্বপ্ন দেখি আমার মেয়ে ডাক্তার হবে। ভর্তির সময় শেষ হতে চলছে টাকার অভাবে মেয়েকে ভর্তি করাতে পারছি না।

খাদিজা ছোটবেলা থেকেই অত্যন্ত মেধাবী। তিনি পিইসি পরীক্ষাসহ সব পাবলিক পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করেছেন। ছোট থেকেই তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন ছিল। স্বপ্ন পূরণের জন্য তিনি অধিকাংশ সময়ই লেখাপড়ার পেছনে ব্যয় করেছেন। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তিনি মেডিক্যালে ভর্তির টাকা জোগাড় করতে পারেননি। স্বপ্ন পূরণের এতো কাছে এসেও টাকার অভাবে স্বপ্ন ভেঙে যাবে তা মেনে নিতে পারছেন না খাদিজা। এজন্য স্বপ্ন পূরণে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

সহযোগিতা করার জন্য আগ্রহীরা ০১৭৯৪৬৫৮৫৮৯৮ ও ০১৭৮০৫৯৭৫৩৫ নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯,২০১৯
এসবি/এফএম/এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চাঁপাইনবাবগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-19 21:13:07