bangla news

ভারতীয় জেলেকে থানায় হস্তান্তর, তদন্তে বিজিবি-বিএসএফ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৭ ১০:৩৪:১৭ পিএম
প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখছেন বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ। ছবি: বাংলানিউজ

প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখছেন বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রাজশাহী বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ জানিয়েছেন বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠকে বিএসএফ দাবি করেছে, বিজিবির গুলিতে বিএসএফের এক সদস্য নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি অনাকাঙ্ক্ষিত। তাই দু’সীমান্তরক্ষী বাহিনী ঘটনাটি তদন্ত করবে। আর অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করে মা ইলিশ ধরার অভিযোগে ভারতীয় এক জেলেকে আটক করে চারঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

রাজশাহীর চারঘাট সীমান্তে থাকা পদ্মা ও বড়াল নদীর মোহনায় মা ইলিশ ধরাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে বিজিবি ও বিএসএফ’র মধ্যে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজশাহী সদর দফতরে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেস ব্রিফিং করে বিজিবি-১ ব্যাটালিয়ন। সেখানে ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক সাংবাদিকদের সকালের ঘটনা সম্পর্কে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

আরও পড়ুন>>>পদ্মায় ভারতীয় জেলেদের ইলিশ শিকার: বিজিবি-বিএসএফ গুলিবিনিময়

রাজশাহী বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক ফেরদৌস জিয়া উদ্দিন মাহমুদ বলেন, ১৭ অক্টোবর সকাল আনুমানিক পৌনে ১১টার দিকে ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ চারঘাট বিওপির (বর্ডার আউট পোস্ট) আনুমানিক এক কিলোমিটার পশ্চিম দিকে এবং সীমান্ত পিলার ৭৫/৩-এস থেকে ৫০০ মিটার বাংলাদেশের ভেতরে চারঘাট থানাধীন শাহরিয়ার খাল নামক স্থানে (জিআর ৭২৮৮৫৮ মানচিত্র ৭৮ডি/১১) মা ইলিশ সংরক্ষণ কর্মসূচির আওতায় মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পদ্মানদীতে অভিযান চলছিল।

অভিযান পরিচালনাকালে মাছ ধরার সময় তিনজন জেলেকে আটক করার চেষ্টা করে। এদের মধ্যে দুইজন পালিয়ে যায় এবং একজনকে জালসহ আটক করে নদীর এপাড়ে নিয়ে আসে। পরে তারা ভারতীয় নাগরিক বলে নিশ্চিত হয়। ঘটনার কিছুক্ষণ পর বিএসএফ-১১৭ ব্যাটালিয়নের কাগমারী ক্যাম্প হতে চার সদস্যের একটি টহল দল স্পিডবোটে অনুমতি ছাড়া শূন্য লাইন অতিক্রম করে অবৈধভাবে ৬০০-৬৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অনুপ্রবেশ করে।

তারা পদ্মানদীর এপাড়ে বিজিবি টহল দলের কাছে গিয়ে এবং আটক ভারতীয় নাগরিককে ছেড়ে দেওয়ার জন্য বলে। বিজিবি টহল দল আটক ভারতীয় নাগরিককে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে বলে জানায়। কিন্তু তারা ভারতীয় নাগরিককে বিজিবির কাছ থেকে নিয়ে মারধর করে এবং তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এতে বিজিবি সদস্যরা বাধা দেয়। এতে বিএসএফ সদস্যরা বিজিবির ওপর আনুমানিক ৬/৮ রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

এ সময় আত্মরক্ষার জন্য বিজিবি টহল দল পাল্টা ফাঁকা গুলি করলে বিএসএফ সদস্যরা গুলি করতে করতে দ্রুত পিছু হটে এবং ওই এলাকা ছেড়ে চলে যায়। আটক ভারতীয় নাগরিকের নাম প্রণব মণ্ডল। তিনি ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার জলঙ্গী থানার সাহেবনগর ছিড়াচর এলাকার বসন্ত মণ্ডলের ছেলে।

বিজিবির টহল দল ভারতীয় ওই জেলের কাছ থেকে চার কেজি কারেন্ট জাল জব্দ করেছে। আটক ভারতীয় নাগরিককে রাজশাহীর চারঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে ঘাটনার পরিপ্রেক্ষিতে ১৭ অক্টোবর বিকেল পৌনে ৫টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। অধিনায়ক রাজশাহী ব্যাটালিয়ন (বিজিবি-১) এবং বিএসএফ (কমান্ড্যান্ট ১১৭) ব্যাটালিয়নের মধ্যে সীমান্ত পিলার ৭৫/৩-এস থেকে আনুমানিক এক কিলোমিটার বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পদ্মানদীর চর শাহরিয়ার বাধ নামক স্থানে এ বৈঠক হয়।

পতাকা বৈঠকে বিএসএফ কমান্ড্যান্ট দাবি করেন তাদের একজন সদস্য নিহত এবং একজন সদস্য আহত হয়েছে।

এ ব্যাপারে উভয়পক্ষ তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়ে একমত হন। এছাড়া এ বিষয়ে আরও আলোচনার জন্য শিগগিরই পতাকা বৈঠক করার বিষয়ে উভয়পক্ষ একমত হন।

এ নিয়ে সীমান্তে উত্তেজনা থাকলেও বিকেলে উভয়পক্ষের মধ্যে শান্তিপূর্ণভাবে পতাকা বৈঠক শেষ হয় বলেও জানান, রাজশাহী বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ।

বাংলাদেশ সময়: ২২৩২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২৯
এসএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজশাহী বিজিবি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-17 22:34:17