bangla news

বাগেরহাটে ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মাদ্রাসা সুপার গ্রেপ্তার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৭ ৫:৩৬:৪৭ পিএম
গ্রেপ্তারকৃত ইলিয়াস হোসেন

গ্রেপ্তারকৃত ইলিয়াস হোসেন

বাগেরহাট: বাগেরহাটের শরণখোলায় ধর্ষণ মামলায় ইলিয়াস হোসেন (৪৫) নামে এক মাদ্রাসা সুপারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। 

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে জেলার ফকিরহাট উপজেলার কাটাখালি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইলিয়াস হোসেন শরণখোলা উপজেলার খোন্তাকাটা রাফেজিয়া ইবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার এবং একই উপজেলার পূর্ব রাজাপুর গ্রামের গফফার জমাদ্দারের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ৮ আগস্ট ইলিয়াস হোসেন মাদ্রাসার লাইব্রেরিতে নিয়ে ৫ম শ্রেণির ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে এবং বিষয়টি তার মা-বাবাকে না জানানোর জন্য ভয় দেখায়। পরে শিশুটির রক্তক্ষরণ শুরু হলে সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে আহত হয়েছে বলে তার বাবা-মাকে জানানো হয়। শিক্ষার্থীকে সুস্থ করতে নিজেই ঝারফাঁক ও পানি পড়া দেন ওই সুপার। কিন্তু তাতেও সুস্থ না হওয়ায় সুপারের পরামর্শে মোরেলগঞ্জ উপজেলার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে শিশুটির বাবা-মা।সেখানে সিঁড়ি থেকে পড়ে যাওয়ার কারণে রক্তক্ষরণ নয়, অন্য কারণ থাকতে পারে বলে চিকিৎসকরা পরিবারকে জানান এবং উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দেন। পরে ১৯ আগস্ট রাতে নির্যাতিত ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ওই মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় মামলা করেন। মামলার পরে সুপার গা ঢাকা দেন। 

পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করতে না পারায়। ১৪ সেপ্টেম্বর মামলাটি পিবিআই বাগেরহাটে টেক ওভার করে। পিবিআই এসআই সাইয়েদকে তদন্ত ভার দেয়।

পিবিআই, বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোজাম্মেল হক বলেন, আমরা মামলাটি টেক ওভার করার পরে পলাতক আসামি ইলিয়াস হোসেন দফায় দফায় তার অবস্থান পরিবর্তন করতে থাকেন। পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে তিনি বিভিন্ন কৌশল ব্যবহার করতে থাকেন। ঢাকা গাজীপুরসহ বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে ছিলেন। সর্বশেষ আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ইলিয়াস হোসেনের অবস্থান শনাক্ত করে কাটাখালী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই। তাকে আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা,  অক্টোবর ১৭, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বাগেরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-17 17:36:47