bangla news

রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উন্মোচন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৭ ৩:২৫:৪২ পিএম
বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উন্মোচন। ছবি: বাংলানিউজ

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উন্মোচন। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রাজশাহী মহানগরীর লক্ষ্মীপুর মিন্টু চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি দৃষ্টিনন্দন ম্যুরাল উন্মোচন করা হয়েছে। প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে ২১ ফুট উচ্চতার এই ম্যুরালটি নির্মাণ করেছে রাজশাহী জেলা পরিষদ।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বেলা ১১টায় রাজশাহীর মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্বোধন করেন।

এ নিয়ে রাজশাহী নগরীতে বঙ্গবন্ধুর দ্বিতীয় ম্যুরাল নির্মিত হলো। এর আগে রাজশাহী কলেজ কর্তৃপক্ষ আরেকটি ম্যুরাল নির্মাণ করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। এছাড়া অনুষ্ঠানটি পরিচলানা করেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ ও নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নাঈমুল হুদা রানা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ম্যুরালটি নির্মাণ করার জন্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। একইসঙ্গে এটি নির্মাণে সহযোগিতা করার জন্য জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদকেও ধন্যবাদ জানান। 

ম্যুরালের আরও সৌন্দর্যবর্ধন করতে এক মাসের মধ্যে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে এই ম্যুরালের চারপাশে টাইলস বসিয়ে দেওয়ার ঘোষণাও দেন মেয়র।

তিনি বলেন, বিএনপি যখন সারা শহরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মামলা-হামলা করে নাজেহাল করছিল, তখন জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনের এই লক্ষ্মীপুর মোড় ছিল সবার আশ্রয়স্থল। এখান থেকেই আমরা বহু মিটিং-মিছিল করেছি। এখানে বঙ্গবন্ধুর একটি ম্যুরাল দরকার ছিল। জেলা পরিষদ করে দিয়েছে। এখন বিএনপি-জামায়াত ও তাদের প্রেতাত্মারা এই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় ভয়ে শিহরিত হবে।

মেয়র আরও বলেন, রাজশাহী কলেজ কর্তৃপক্ষ একটি বঙ্গবন্ধুর সুউচ্চ ম্যুরাল করেছে। এটা দ্বিতীয় ম্যুরাল হলো। আগামী বছর জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর আগেই রাজশাহীতে আরও ছয় থেকে সাতটি ম্যুরাল নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর মধ্যে সিআ্যান্ডবি মোড়ে জেলা পরিষদের জমিতে নির্মাণ হবে ৭২ ফুট উঁচু একটি ম্যুরাল। ইতোমধ্যেই এর ডিজাইন প্রস্তুত হয়েছে। এটি হবে দেশে বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে উঁচু ম্যুরাল।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, জাতির পিতার জন্ম না হলে আজ আমরা স্বাধীন দেশ, পতাকা পেতাম না। তার ম্যুরাল নির্মাণ করতে পেরে জেলা পরিষদ গর্বিত। বঙ্গবন্ধুকে সার্বক্ষণিক সহায়তা করেছেন রাজশাহীর কৃতি সন্তান জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান। রাজশাহী জেলা পরিষদ তারও ম্যুরাল নির্মাণ করবে।

ম্যুরাল উন্মোচন শেষে মোনাজাত করা হয়। পরে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বঙ্গবন্ধুর এই ম্যুরালে পুস্পস্তবক অর্পণ করে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর শ্রদ্ধা জানান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার। পরে জেলা মহিলা লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ এবং জেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেস তালুকদার, সাবেক এমপি আক্তার জাহান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিব, প্যানেল চেয়ারম্যান-২ রবিউল আলম, প্যানেল চেয়ারম্যান-৩ নার্গিস আক্তার প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০১৯
এসএস/এসএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-10-17 15:25:42