ঢাকা, সোমবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ সফর ১৪৪২

জাতীয়

খাগড়াছড়িতে কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১৯
খাগড়াছড়িতে কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু

খাগড়াছড়ি: ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়িতে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসব কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু হয়েছে। 

প্রবারণা পূর্ণিমা শেষে মাসব্যাপী এ ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে তিন পার্বত্য জেলার বিহারে বিহারে কঠিন চীবর উৎসব শুরু হয়।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) খাগড়াছড়ির কল্যাণপুর বৌদ্ধবিহারে প্রথম কঠিন চীবর দানোৎসব সম্পন্ন হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ধর্মীয় গুরুরা বৌদ্ধ ধর্মের অনুশাসন মেনে পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন।  
 
মহা উপাসিকা বিশাখা প্রবর্তিত চীবর দানই হলো কঠিন চীবর দানোৎসবের প্রধান আকর্ষণ। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তুলা থেকে সুতা তৈরি করে সেই সুতায় চীবর তৈরি করা হয়ে থাকে। প্রথমে চরকায় তুলা থেকে সুতা তৈরি করার পর, সুতা বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় রং দিয়ে বেইনের মাধ্যমে তৈরি করা হয় চীবর বা কাপড়। এই চীবর পর দিন বিকেলে দায়ক-দায়িকারা উৎসর্গ (দান) করেন ভান্তেদের উদ্দেশ্যে। বৌদ্ধ ধর্মপ্রিয় মানুষ পুণ্যের আশায় দলে দলে ছুটে যান বিহারে। উৎসবে পাহাড়িরা ছাড়াও বিভিন্ন ধর্ম, বর্ণের মানুষ অংশ নেন।  
 
কঠিন চীবর দানোৎসব উপলক্ষে বিহার প্রাঙ্গণে ঊষা বন্দনা, সংঘদান, অষ্ট পরিষ্কার দান, পঞ্চশীল প্রার্থনা, প্রদীপ পূজা প্রভৃতি ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালিত হয়েছে। ভান্তের প্রবজ্জা গ্রহণ, পরজন্মে জ্ঞান লাভের উদ্দেশ্যে পিদিমা বা কল্পতরুতে দান করেন ধর্মপ্রাণ মানুষ। সন্ধ্যায় হাজারও বাতি প্রজ্জ্বলন ও ফানুস ওড়ানোর মধ্য দিয়ে ধর্মীয় কর্মসূচি শেষ হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ০০৩৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১৯ 
এডি/এফএম/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa