bangla news

আটপাড়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে পানির সংকট

সৌমিন খেলন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১৩ ১০:৫৩:৫১ এএম
পানির জন্য রানীদের লাইন। ছবি: বাংলানিউজ

পানির জন্য রানীদের লাইন। ছবি: বাংলানিউজ

আটপাড়া (নেত্রকোনা) থেকে ফিরে: নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলায় তীব্র পানির সংকটে রয়েছেন সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পের সদস্যরা। 

পানির সংকট ছাড়াও উপজেলার পূর্ব হাতিয়া এলাকায় সরকারের আশ্রয়ণ প্রকল্পটিতে আড়াইশ’ মানুষের রয়েছে নানাবিধ সমস্যা। তবে টিকে থাকার জন্য অন্য সমস্যাগুলো আশ্রয়গ্রহণকারীরা কোনোরকম মোকাবেলা করতে পারলেও পানির সংকট তাদের বড় বেশি ভোগাচ্ছে। 

আর এ সংকটের কারণে অনেকেই আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে অন্যত্র চলে গিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বসবাসরতরা।

আশ্রয়ণ প্রকল্প ঘুরে দেখা যায়-অধিকাংশ ঘর ভাঙাচোরা জরাজীর্ণ পরিত্যক্ত পড়ে আছে। পানি সংকট মোকাবেলা করতে না পেরে এরই মধ্যে নয়টি পরিবার অন্যত্র চলে গেছে বলে জানান
প্রকল্পের সদস্যরা।

তাদের মধ্যে হ্যাপি, সেলিম ও মোস্তফা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমরা পানির সমস্যায় ভুগছি। কিন্তু সরকারি কোনো কর্মকর্তা বা জনপ্রতিনিধি আমাদের খোঁজ-খবর নেন না। আশ্রয়ণ প্রকল্পের পাঁচটি ব্যারাকের কোথাও সরকারি টিউবওয়েল নেই। এ পরিস্থিতিতে আড়াইশ’ মানুষ মিলে প্রতিদিন পানির জন্য সংগ্রাম করতে হয়।

বেসরকারি সংস্থা একটি টিউবওয়েল দিয়েছে তবে সেটি থেকেও ঠিকমত পানি বের হয় না। তাছাড়া আড়াইশ’ মানুষের পানির চাহিদা মেটাতে একটি টিউবওয়েল মোটেও পর্যাপ্ত নয়।

কাপড় ধোয়া, গোসল, রান্না-বান্নাসহ খাওয়ার পানি সংগ্রহ করতে গেলে সিরিয়ালের জন্য ঘণ্টা দুয়েক চলে যায় প্রতিদিন। এসব ঘটনায় নিজেদের মধ্যে মনোমালিন্য আর ঝগড়া বিবাদ হয়। 

আশ্রয়ণ প্রকল্পের সদস্যদের পানির সমস্যা দূরীকরণে প্রথমত তাদের এখন একটিই দাবি ‘টিউবওয়েল’। তারা আশা করেন কর্তৃপক্ষ তাদের সমস্যার কথা না জানলেও সংবাদমাধ্যম থেকে জানতে পেরে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।

আটপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজা সুলতানা বাংলানিউজকে জানান, সমস্যাগুলো সম্পর্কে তিনি অবগত নন। তবে খোঁজ নিয়ে কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৩, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নেত্রকোণা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-13 10:53:51