bangla news

ভূমিসেবার অভিযোগ মন্ত্রণালয়ে জানাতে হটলাইন চালু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-১০ ৪:৩০:৩৩ পিএম
হটলাইনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। ছবি: জিএম মুজিবুর

হটলাইনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: স্বচ্ছ, দক্ষ, আধুনিক, টেকসই এবং জনবান্ধব ভূমি ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে ১৬১২২ হটলাইন চালু করেছে ভূমি মন্ত্রণালয়। 

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) রাজধানীর সিরডাপ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে হটলাইনের উদ্বোধন করেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

ভূমিমন্ত্রী বলেন, ভূমিমন্ত্রণালয়কে সেবামূলক মন্ত্রণালয় হিসেবে গড়ে তোলার কাজ চলছে। এই হটলাইনে মন্ত্রণালয়কে জবাবদিহি করার সুযোগ থাকবে জনগণের।

তিনি আরও বলেন, মাঠ পর্যায়ে জনগণের ভূমি সংক্রান্ত সব সমস্যার কথা লিপিবদ্ধ করলেও অভিযোগগুলোর সমাধানে বেশকিছু ধাপ পার করতে হবে। কারণ জমি সংক্রান্ত সমস্যা একদিনেই সম্ভব নয়। তবে, হটলাইনে সহজেই মন্ত্রণালয়কে অভিযোগের সুযোগ তারা পাবেন।  

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ভূমিমন্ত্রী বলেন, হটলাইনে কোনো কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ এলে, তার তদন্ত করা হবে। এ সময় অভিযোগকারীর জমির ফাইলপত্র ভালো মতো যাচাই করা হবে। যদি এখানে দুর্নীতির কোনো সুযোগ থেকে থাকে, তাহলে অবশ্যই প্রচলিত আইন অনুযায়ী অপরাধীর বিচার নিশ্চিত করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এটা কোনো জরুরি অবস্থার হটলাইন নয় বলে টোল ফ্রি রাখা হয়নি। মোবাইল অপারেটরের নির্ধারিত কলরেট অনুযায়ী, এখানে ফোন দেওয়া যাবে। হটলাইনটি সকাল নয়টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

সবশেষে ভূমিসচিব মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে হটলাইনের পরবর্তী বিস্তারিত সুযোগ-সুবিধা তুলে ধরেন তার একান্ত সচিব দৌলতুজ্জামান খাঁন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ভূমি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সংসদ সদস্য উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম, ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান উম্মুল হাছনা ও ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান আবদুল হান্নান।

শেখ হাসিনা বিশেষ উদ্যোগ’ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এর আওতায় স্থাপিত ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ এর কার্যক্রম প্রতি কর্মদিবসে সকাল ৯টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে। হটলাইন সেবা পেতে নিয়মিত কলচার্জ প্রযোজ্য হবে। হটলাইনের মাধ্যমে জরুরি অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ, দ্রুততম সময়ের মধ্যে অভিযোগ নিষ্পত্তি ও সেবাগ্রহিতার কাছ থেকে অভিযোগ গ্রহণ করা হবে। হটলাইন ব্যবহারকারীর নাম, ঠিকানা বা পরিচয় কোনো অবস্থাতেই প্রকাশ করা হবে না। ল্যান্ড সার্ভিস হটলাইন সিস্টেমটি জাতীয় ভূমি তথ্য ও সেবা কাঠামোর (জমি) সঙ্গে একীভূত।

ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে ভূমি সম্পর্কিত অভিযোগগুলো সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সমাধান করবেন। হটলাইনে পাওয়া সমস্যার বিষয়গুলো সরাসরি ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান, ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান, মহাপরিচালক ভূমি জরিপ অধিদপ্তর ছাড়াও বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের জানানো হবে। ভূমিমন্ত্রী ও ভূমি সচিব হটলাইনে প্রাপ্ত অভিযোগের বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

কল সেন্টারটি মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন থাকবে। প্রাথমিক ভাবে এখানে ৫ জন এজেন্ট/অপারেটর থাকলেও ক্রমে ৩০ জন এজেন্ট/অপারেটর নেওয়া হবে। অত্যাধুনিক পূর্ণাঙ্গ এ কলসেন্টারে ৩৬ ইউনিটের সিসিটিভি সিস্টেম, ডিজিটাল এলআইডি ইন্টারেকটিভ মনিটরসহ আনুষঙ্গিক অনেক আধুনিক যন্ত্রপাতি থাকবে বলে। হটলাইন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের উদ্দেশ্যে 'হটলাইন (১৬১২২) নির্দেশিকা' প্রণয়ন করা হয়েছে। ভূমি সেবা হটলাইন সম্পর্কিত ওয়েব পেজ ‘অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা’ (hotline.land.gov.bd)।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ১০, ২০১৯
এমআইএইচ/ডিএন/কেএসডি/এএটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-10 16:30:33