ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ফাহাদের ছোটভাইকে পেটালো পুলিশ!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-০৯ ১১:০৭:৫৭ পিএম
ফাহাদের ছোটভাইকে পেটালো পুলিশ!

কুষ্টিয়া: নিহত বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফায়াজকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশে বিরুদ্ধে। ফাহাদের কবর জিয়ারত শেষে বুয়েট উপাচার্য সাইফুল ইসলাম ফাহাদের বাড়িতে প্রবেশ করতে গেলে বাধা দেয় গ্রামবাসী। এসময় গ্রামবাসীর বিক্ষোভের মুখে ভিসি ফাহাদের বাড়ি যেতে পারেননি।

এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ এগিয়ে আসে। এতে গ্রামবাসীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে।

এতে আবরারের ছোটভাই ফায়াজ ছাড়াও তার ফুপাতো ভাইয়ের স্ত্রী ও আরও এক নারী আহত হন।

বুধবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় রায়ডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুয়েট উপাচার্যকে ‘এখন কেন আসছে, এত দেরি করে’ নিহত ফাহাদের ভাই ফায়াজের এমন প্রশ্ন করার সময় পুলিশ তাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেয়।

আবরারের ছোটভাই ফায়াজ অভিযোগ করে বলেন, আমার গায়ে হাত দিয়েছে। বুকে গুতো মেরেছে। কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান নিজে আমাকে মেরেছে। আমার এক ভাইকে পিটিয়ে মেরেছে, এবার পুলিশ কি আমাকে মারবে?

এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমানের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত ফাহাদের ভাই ফায়াজকে পেটানোর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পুলিশ কেন মারবে ফায়াজকে? এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। এ অভিযোগ ভিত্তিহীন। সেখানে মিডিয়ার লোকজন ছিল। তাদের ক্যামেরার ভিডিওগুলো দেখেন। তাহলেই বোঝা যাবে মেরেছে কি মারেনি।

৬ অক্টোবর (রোববার) রাতে বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে ডেকে নিয়ে যায় ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী। এরপর তাকে শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় বুধবার পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সবাইকে আদালতের মাধ্যমে পাঁচদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৯, ২০১৯
এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa