bangla news

শেখ হাসিনার ভারত সফরে মৈত্রী-৩ চলাচল চূড়ান্ত করার দাবি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২৩ ৪:০১:২৮ পিএম
মৈত্রী-৩

মৈত্রী-৩

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরের প্রস্তাবিত রাজশাহী-রহনপুর-সিঙ্গাবাদ-মালদহ কলকাতা (মৈত্রী-৩) যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল চূড়ান্ত করার দাবি জানিয়েছেন রাজশাহী অঞ্চলের জনসাধারণ।

এ অঞ্চলের জনগণের দাবিকে সম্মান জানিয়ে রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা ২ বছর আগে রাজশাহী থেকে রহনপুর-ভারতের সিঙ্গাবাদ ও মালদহ হয়ে কলকাতা যাওয়া যাত্রীবাহী একটি ট্রেন চালু করার দাবি জানান ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশনে।

বিষয়টি নিয়ে উভয় দেশ ইতোধ্যেই অনেকদূর এগিয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। এর অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই দুই দেশের রেল কর্তৃপক্ষের সমীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ তাদের সীমান্তবর্তী স্টেশন সিঙ্গাবাদ এলাকায় ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস স্টেশন তৈরির কাজ শুরু করেছে।

এ ব্যাপারে রহনপুর পৌর মেয়র তারিক আহম্মেদ জানান, বর্তমানে রহনপুর-সিঙ্গাবাদ রুটে মালবাহী ট্রেন চলাচল চালু থাকায় এ রুট দিয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু করতে তেমন একটা খরচ বা সমস্যা নাই। তাই এ অঞ্চলের মানুষের কথা চিন্তা করে এ রুটটি দিয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হওয়া উচিত।

তিনি আরও জানান, এ রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু হলে রাজশাহী অঞ্চল তথা রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলার জনসাধারণ সহজেই মালদহ হয়ে নেপাল, কলকাতাসহ ভারতের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করতে পারবে।

অন্যদিকে সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মো. জিয়াউর রহমান জানান, ভারতে সিঙ্গাবাদ এলাকায় ইতোমধ্যেই অবকাঠামোগত উন্নয়ন শুরু হয়েছে। রহনপুরে রেলওয়ের পর্যাপ্ত জায়গা থাকায় বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী স্টেশন রহনপুরে ইমিগ্রেশন কাস্টমস স্টেশন নির্মাণ করলেই এ রুটটি দিয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন চালু করা সম্ভব। তাই তিনিও চান রহনপুর রেল স্টেশনে ওই ট্রেনের যাত্রা বিরতি এবং ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস ভবন নির্মাণ সম্পন্ন করা হোক। আর এতে করে রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলার জনসাধারণ সরাসরি উপকৃত হবেন। বিশেষ করে রাজশাহী অঞ্চলের জনসাধারণের সঙ্গে মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলার জনসাধারণের আত্মীয়তার সম্পর্ক থাকায় এ রুটে ট্রেনটি চালু হলে খুব অল্প সময়ে ট্রেনটি জনপ্রিয় হয়ে উঠবে।

এদিকে ভারতের উত্তর মালদহ এলাকার লোকসভার সদস্য বিজেপির খগেন মুর্মু এ রুট দিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্থাপনের বিষয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। 

অন্যদিকে রাজশাহী সদরের সংসদ সদস্যসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জের ক্ষমতাসীন দলের নেতারা এ রুটে ট্রেন চালু হওয়ার ব্যাপারে তৎপর হওয়ায় উভয় দেশের জনসাধারণ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলের খবরে আশান্বিত হয়েছেন। এ রুট দিয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হলে সহজেই নেপালসহ সমগ্র ভারতে যাতায়াত করা যাবে। সেইসঙ্গে দুই দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যসহ পর্যটন শিল্প বিকাশে যথেষ্ট ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন এ অঞ্চলের জনসাধারণ। তাই প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন ভারত সফরে এ রুটটি দিয়ে যাত্রীবাহী ট্রেন চালুর উদ্যোগ নেওয়া হোক এটায় এই এলাকার জনসাধারণের প্রত্যাশা।

প্রসঙ্গত, এ রুট দিয়ে নেপাল ও ভারত হয়ে পণ্য পরিবহন হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চাঁপাইনবাবগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-23 16:01:28