bangla news

কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া রুটে দুই স্পিডবোটের সংঘর্ষে আহত ৩

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২২ ১১:৫৭:১৪ এএম
মাদারীপুরের ম্যাপ

মাদারীপুরের ম্যাপ

মাদারীপুর: কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটের পদ্মা নদীর চায়না চ্যানেলে দু’টি স্পিডবোটের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন।

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল পৌনে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে শিমুলিয়া প্রান্তে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। স্পিডবোট দু’টিতে ৪২ জন যাত্রী ছিল।

আহত যাত্রীরা হলেন- হাবিবুর রহমান (২৭), ফাতেমা আক্তার (২০) ও মোশাররফ হোসেন (২৮)। তাদের সবার বাড়ি শিবচরের মাদবেরচর এলাকায়।

ঘাটের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সকালে শিমুলিয়া থেকে চালক কাওসারের একটি স্পিডবোট কাঁঠালবাড়ীর উদ্দেশে রওনা দেয়। অপরদিকে কাঁঠালবাড়ী থেকে আনোয়ার নামের আরেক চালকের একটি বোট যাত্রী নিয়ে শিমুলিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়। সকাল পৌনে ১০টার দিকে স্পিডবোট দু’টি চায়না চ্যানেলে এলে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। 

এসময় একটি বোট দুমড়ে-মুচড়ে তলিয়ে যায়। অপরটি স্রোতে ভেসে যায়। উভয় বোটের যাত্রীরা পানিতে ডুবে গেলে আশপাশের ট্রলার ও মাছ ধরার নৌকা এসে তাদের উদ্ধার করে। এ দুর্ঘটনায় উভয় বোটের তিন জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। 

তবে কেউ নিঁখোজ বা নিহত হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নৌ পুলিশের একটি সূত্র জানায়, চ্যানেল মুখে ড্রেজারের পাইপের কারণে স্পিডবোট দু’টি একপাশে চেপে আসতে গিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়েছে। 

তবে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, যাত্রীদের কেউ নিঁখোজ থাকতে পারে। কেননা, দুর্ঘটনার ফলে একটি বোট দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। আহত হয়ে তলিয়ে যাওয়াটা স্বাভাবিক।

বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী লঞ্চ ঘাটের টার্মিনাল ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন বলেন, উভয় ঘাট থেকে ছেড়ে আসা দু’টি বোটের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কয়েক যাত্রী আহত হলেও তেমন গুরুতর নয় বলে জেনেছি। সব যাত্রীদেরই উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। কেউ নিঁখোজ নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৫ সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মাদারীপুর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-22 11:57:14