ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ অক্টোবর ২০১৯
bangla news

বিষাক্ত মদ পান করে ২ যুবকের মৃত্যু

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-২২ ১২:২৮:৫২ এএম
ছবি : প্রতীকী

ছবি : প্রতীকী

নরসিংদী: নরসিংদীর শিবপুরে বিষাক্ত মদ পান করে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়। নিহতরা হলেন, শিবপুর উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের দড়িপুর গ্রামের আজাদ মিয়ার ছেলে শাকিল (২২)। সে স্থানীয় একটি ওর্য়াকসপে কাজ করতো। আরেকজন বাঘাবো গ্রামের কবির মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (২২)। সে স্থানীয় বালু মহালের শ্রমিক।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে নিহত শাকিল ও সুমনসহ তাদের ৫/৬ বন্ধু নরসিংদী পৌর শহরের বাজির মোড় এলাকা থেকে মদ কিনে আনেন। পরে তারা সবাই মিলে মদ পান করেন। এরপর তাদের শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হয়। মদপান শেষে বাড়িতে গিয়ে তারা ঘুমিয়ে পড়েন। কিন্তু একদিন পার হলেও তাদের ঘুম ভাঙে না। শনিবার তাদের অনেক ডাকাডাকির পর সজাগ হলেও তারা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে। ওই সময় তাদের পেটে প্রচণ্ড ব্যাথা ও জ্বালাপোড়া শুরু হয়। অবস্থার অবনতি হলে শনিবার বিকেলে তাদের শিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাদের নরসিংদী  হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার অবনতি হলে জেলা হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাদের ঢাকায় পাঠান। ঢাকায় নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়।

নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা (আরএমও) বাংলানিউজকে বলেন, সন্ধ্যায় শাকিল ও সুমনকে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। কোনো প্রকার সাড়া পাচ্ছিলাম না। পরে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়।

শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, নরসিংদীর  বাজির মোড় থেকে মদ কিনে এনে সবাই পান করেন। পরে তাদের পেটে ব্যাথা শুরু হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে মদ পানের কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় আইনানুগ ব্যবস্থার প্রক্রিয়া চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ০০২৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
এমএমইউ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নরসিংদী
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-22 00:28:52