bangla news

‘এ শিক্ষা আমরা অন্যদের মাঝেও ছড়িয়ে দেবো’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১৬ ১০:৪৭:২৪ এএম
মুন্নি-হরি দম্পতি। ছবি: বাংলানিউজ

মুন্নি-হরি দম্পতি। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: ‘আমাদের নারী চা-শ্রমিকরা অনেক অবহেলিত। বিশেষ করে গর্ভবতী মায়েরা। কারণ গর্ভাবস্থাতেই তাদের চা-পাতা উত্তোলনসহ ভারী ভারী কাজগুলো করতে হয়। তখনই গর্ভপাতসহ মারাও যায় কেউ কেউ।’

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মিরতিঙ্গা চা-বাগানে আয়োজিত ‘যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য’ বিষয়ক সেমিনারে অংশ নিয়ে এসব কথাই বলছিলেন মুন্নি-হরি দম্পতি। 

নারী চা-শ্রমিকদের অনেককেই তাদের শরীরে অভূমিষ্ঠ সন্তান নিয়ে ভারী কাজে যেতে হয়। ফলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দিকটিকেও এখানে অস্বীকার করার উপায় নেই। গর্ভবতী নারী চা-শ্রমিকদের মাতৃত্বকালীন ছুটি চার মাস। প্রসবের আগে পড়ে এই ছুটি নেওয়ার কথা। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, গর্ভবতী চা-শ্রমিকরা সন্তান জন্মদানের আগের দিন পর্যন্তও চা-বাগানে কাজ করেন।

এসএসসি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন মুন্নি। স্বামী হরিনারায়ণ নুনিয়া স্থায়ী শ্রমিক হিসেবে তাজ করেন মাজদিহি চা-বাগানে। আর মুন্নি এলাকার প্রাথমিক মানের বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। শিক্ষকতার পাশাপাশি চা-বাগানের অবহেলিত নারী চা-শ্রমিকদের নানা বিষয়ে সচেতন করার কাজটি করে থাকেন তিনি। অপর্ণা ও অনিমা নামে এগারো এবং ছয় বছরের দুটো কন্যা সন্তানও রয়েছে এ দম্পতির। দু’জনেই স্কুলে পড়ে।

বাংলানিউজকে মুন্নি বলেন, চা-বাগানের নারী শ্রমিকদের অনেকেই দারিদ্র ও অপুষ্টির শিকার। গর্ভবতী মায়েদের অবস্থা আরও করুণ। পেটে সন্তান নিয়েই কাজে যেতে হয় অনেককে। ফলে গর্ভাবস্থায় পাহাড়ি পথে হাঁটতে হাঁটতে মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যান তারা। সূর্যতাপ বাড়লে যখন তাদের জলের তৃষ্ণা পায়, তখন অনেক সময় পানিওয়ালাকে (যে ব্যক্তি চা শ্রমিকদের পানি পান করান) ধারে-কাছে পাওয়া যায় না।
হরিনারায়ণ নুনিয়া বলেন, আজ এই সেমিনার থেকে অনেক কিছু শিখলাম। আমরা এই বিষয়টি অন্যদের মাঝেও ছড়িয়ে দেবো। বিশেষ করে পরিবার পরিকল্পনার নানা পদ্ধতি ও দিক। আমাদের মতো দুই সন্তান থাকলে পারিবারিক স্বচ্ছলতা ফিরে আসে।

আক্ষেপের সুরে হরি বলতে থাকেন, দৈনিক ১০২ টাকা মজুরিতে আমাদের চা-শ্রমিকদের জীবনযাপন করা অনেক কঠিন ব্যাপার। তারপরও আমাদের তো টিকে থাকতে হবে বাবু। এছাড়া কোনো উপায় নেই

বাংলাদেশ সময়: ১০৪৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
বিবিবি/এসএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মৌলভীবাজার
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-09-16 10:47:24