bangla news

২য় বার এডিসের লার্ভা পাওয়া গেলে জরিমানা: মেয়র আতিক

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১৫ ১:৪২:১৯ পিএম
পরিচ্ছন্নতা ও চিরুনী অভিযানের (২য় পর্যায়) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম/ছবি: জিএম মুজিবুর

পরিচ্ছন্নতা ও চিরুনী অভিযানের (২য় পর্যায়) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম/ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: ডেঙ্গু নিধনে জরিমানার কোনো বিকল্প নেই উল্লেখ করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, প্রথম পর্যায়ে যেসব বাসায় আমরা এডিস মশার লার্ভা পেয়েছিলাম তখন তাদের বোঝানো হয়েছে, কোনো জরিমানা করিনি। তবে দ্বিতীয় পর্যায়ে ওই সমস্ত বাসায় লার্ভা পাওয়া গেলে জরিমানা করা হবে।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর মিরপুরের বিশেষ পরিচ্ছন্নতা ও চিরুনি অভিযানের (২য় পর্যায়) উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দুই নম্বর গেটে এডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংস করার লক্ষ্যে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।

মেয়র বলেন, ঢাকা শহরকে একটি পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, প্রথম পর্যায়ে আমরা ১ লাখ ২৩ হাজার বাড়িতে চিরুনি অভিযান পরিচালনা করি। তার মধ্যে দুই হাজার ৫৩টি বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পেয়েছি এবং ৬২ হাজার বাড়ি শনাক্ত করতে পেরেছি। যেখানে এডিস মশার লার্ভা প্রজননস্থল। এখানে এডিস মশার জন্ম হতে পারে। আমি নির্দেশ দিয়েছি যে ৬২ হাজার বাসাবাড়িতে চিরুনি অভিযান হবে। 

তিনি আরও বলেন, প্রথম পর্যায়ে আমরা সেমিফাইনাল খেলেছি। এবার আর সেমিফাইনাল নয়, এবার ফাইনাল খেলবো। এসব বাসা বাড়িতে যদি লার্ভা পাওয়া যায় তাহলে পেনাল্টি করা হবে। তাই নিজ দায়িত্বে এগুলো ধ্বংস করুন, আমাদের প্রতিটি সিট তৈরি করা আছে এবং সেই কর্মীগুলোই যাচ্ছে তারা জানে কোন কোন বাড়িতে এগুলো আছে। যাতে কোনো কমিউনিকেশন গ্যাপ না হয়। ওই বাসা বাড়িতে যদি আমরা লার্ভা পাই তাহলে অবশ্যই জরিমানা করবো। প্রথম পর্যায়ে আমরা বাসাবাড়িতে জরিমানা করিনি, কিন্তু এবার সেটি থেকে রক্ষা পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। 

তিনি বলেন, আমাদের কোনো উপায় নাই বাসা-বাড়ি অফিস-আদালত যেখানে আমরা লার্ভা পাবো সেখানেই জরিমানা করবো কারণ এই মাসটা খুব ক্রুশিয়াল মাস। এই মাসে যদি এই লার্ভা জমে থাকে তাহলে পরে বৃষ্টি হলে আবারও এডিস মশার জন্মাবে। 

তিনি আরো বলেন, শুধু সিটি করপোরেশন ও সরকার নয়, এটি ধ্বংসে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে আমরা একটি সহনীয় পর্যায়ে আসতে পারবো।

মেয়র বলেন, আপনারা যেভাবে আমাকে প্রথম স্তরে সহযোগিতা করেছেন দ্বিতীয় স্তরে আরো বেশি সহযোগিতা করবেন বলে আশা করছি।

তিনি বলেন, মশা নিধনে ৩৬৫ দিনই কাজ করতে হবে। শুধু সিজেনের আগে কাজ করলে হবেনা। 

মেয়র বলেন, সবাই যদি নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করেন তাহলে ডেঙ্গুকে আমরা অনেক বেশি কন্ট্রোলে নিয়ে আসতে পারবো। তাই আমি অনুরোধ করছি বাসা বাড়ি পরিষ্কার রাখুন, বাসার আঙিনা পরিষ্কার রাখুন, খেলার মাঠ-ময়দান-রাস্তা পরিষ্কার রাখুন। যাতে করে আমরা একটা নিরাপদ ঢাকা শহরে বাস করতে পারি।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
এসএমএকে/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-15 13:42:19