bangla news

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে চীন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১১ ১১:১৩:৪৭ পিএম
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতে চীনা রাষ্ট্রদূত/ছবি-পিআইডি

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতে চীনা রাষ্ট্রদূত/ছবি-পিআইডি

ঢাকা: বাংলাদেশে নবনিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশ থেকে ফিরে যেতে বেইজিং গঠনমূলক ও সক্রিয় ভূমিকা রাখবে।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, আমরা এই ইস্যুতে কাজ করছি, মিয়ানমারে আমাদের রাষ্ট্রদূত রাখাইন রাজ্য পরিদর্শন করেছেন।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জাতীয় সংসদে তার কার্যালয় সৌজন্য সাক্ষাতে চীনের রাষ্ট্রদূত এ কথা বলেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশের জন্য বড় বোঝা। অবশ্যই রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমিতে ফিরে যেতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, মিয়ানমারকে অবশ্যই জোরপূর্বক বিতাড়িত এসব রোহিঙ্গা নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। তাদের মধ্যে আস্থা ও বিশ্বাস যেন ফিরে আসে এবং যাতে তারা তাদের মাতৃভূমিতে ফিরে যেতে পারে।

বাণিজ্য-বিনিয়োগ প্রসঙ্গে চীনা রাষ্ট্রদূত বলেন, চীনা উদ্যোক্তারা বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।

গত ১০ বছরে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করে লি জিমিং বলেন, বাংলাদেশ এই সফলতা অর্জন করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসাধারণ নেতৃত্বগুণে। 

বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রকল্পে চীনা সহযোগিতার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চীন সবসময় বাংলাদেশের সহযোগী। 

চীনা উদ্যোক্তাদের জন্য আলাদা বিশেষ অর্থনৈতিক জোন বরাদ্দ রাখার কথা উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। 

সাক্ষাতের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ২৩১২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯
এমইউএম/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-09-11 23:13:47