bangla news

অবৈধ স্ট্যান্ড, যানজটে ভোগান্তি

সাজ্জাদ হোসেন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০৬ ৬:৫৭:১৩ পিএম
সিএনজি স্ট্যান্ড

সিএনজি স্ট্যান্ড

মুন্সিগঞ্জ: মুন্সিগঞ্জ শহরের কয়েকটি জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে অটোরিকশা-সিএনজি স্ট্যান্ড। এ কারণে প্রতিনিয়ত  
 

যানজট ও চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন পথচারীরা। তবে গড়ে ওঠা এসব অবৈধ স্ট্যান্ডগুলো সরাতে আগ্রহ নেই সংশ্লিষ্টদের।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,  খালইস্ট এলাকায় সড়কের ওপর গড়ে তোলা হয়েছে অটোরিকশা-সিএনজি স্ট্যান্ড। সুপার মার্কেট এলাকায় অটোরিকশা স্ট্যান্ডের কারণে যানজট লেগেই থাকে। হাটলক্ষীগঞ্জ এলাকায় লঞ্চ টার্মিনালে প্রবেশের মুখে সড়কের দুইপাশে অটোরিকশা ও মিশুক স্ট্যান্ড। পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এবং শিল্পকলা একাডেমির সামনে অটোরিকশা স্ট্যান্ড গড়ে তোলা হয়েছে। মাঠপাড়া এলাকার জেলা স্টেডিয়ামের সামনে সিএনজি স্ট্যান্ড দেখা যায়। মাঠপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে স্ট্যান্ডটির কারণে শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে চলাফেরা করছে। এছাড়া কোর্ট চত্বর এলাকায় সিএনজি স্ট্যান্ড সড়কের ওপর গড়ে তোলা হয়েছে। অবৈধ এসব সিএনজি স্ট্যান্ডের বেশিরভাগ চালকের বৈধ লাইসেন্স ও কাগজপত্র নেই। অটোরিকশা চালকরা ট্রাফিক আইন না মেনে শহরে যানজট সৃষ্টি করছে। 
 
পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, খালইস্ট এলাকার সিএনজি স্ট্যান্ডটি ‘কাশেম’ তদারকি করে। এখানে ২০টির মতো সিএনজি থাকে। প্রতিদিন প্রত্যেক সিএনজি থেকে ৩০-৪০ টাকা দেওয়া হয়। জেলা স্টেডিয়ামে ১০০টির মতো সিএনজি রয়েছে। এসব সিএনজি বাংলাবাজার পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করে থাকে। এছাড়া কোর্টচত্বরে এক শতাধিক সিএনজি সড়কের উপর স্ট্যান্ড গড়ে তুলেছে। এসব শ্রীনগর, সিরাজদিখান উপজেলায় যাত্রী পরিবহন করে থাকে। স্ট্যান্ডগুলো থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার রাজনৈতিক নেতারা চাঁদা নিয়ে থাকেন।
 
সিএনজি চালিত অটোরিকশার স্ট্যান্ডের চালক সজল মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, গাড়ি রাখার লেইগ্যা আমাগো স্ট্যান্ডের দরকার। কিন্তু অন্য কোনো খানে জায়গা নাই দেইখ্যা এইখানে গাড়ি রাখা হয়। এতে কিছুডা যানজট হয়। 

খালইস্ট এলাকার রতন মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, সড়কটি সরু। তার ওপর রাস্তার দুই পাশে সিএনজি-অটোরিকশা রাখায় প্রতিনিয়ত যানজট লেগেই থাকে। অনেক সময় বাসার দরজার সামনে সিএনজি, অটোরিকশা রেখে দেয়। চালকরা প্রায় সময় খারাপ ব্যবহার করে পথচারীদের সঙ্গে।
  
মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিল ফরহাদ হোসেন আবির বাংলানিউজকে বলেন, জেলা স্টেডিয়ামের সামনের সিএনজি স্ট্যান্ডটি অবৈধ। মাঠপাড়ার এলাকাবাসী একাধিকবার স্ট্যান্ডটির কারণে তাদের সমস্যার কথা বলে আসছেন। স্কুলের পাশেই সিএনজি স্ট্যান্ডটির কারণে শিশুদের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।
  
মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মান্নান দর্পন বাংলানিউজকে বলেন, সদর থানার ওসিকে স্ট্যান্ডটি সরানোর ব্যাপারে বলছিলাম। এছাড়া খালইস্ট এলাকায় স্ট্যান্ডটি সরানোর ব্যাপারে এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরেই বলছে।
 
সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) নাজমুল রায়হান বাংলানিউজকে বলেন, জেলা প্রশাসন থেকে এসব স্ট্যান্ড সরানোর ব্যাপারে সহযোগিতা করবে ট্রাফিক বিভাগ। 

মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, অবৈধ স্ট্যান্ড সরানো ব্যাপারে গঠিত কমিটি একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে জেলা প্রশাসকের কাছে। শিগগিরই এসব স্ট্যান্ড সরানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মুন্সিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-06 18:57:13