ঢাকা, সোমবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

‘গত নির্বাচন ছিল স্বতঃস্ফূর্ত ও অংশগ্রহণমূলক’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯
‘গত নির্বাচন ছিল স্বতঃস্ফূর্ত ও অংশগ্রহণমূলক’

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশিদ বলেছেন, গত নির্বাচনে আমাদের অভিজ্ঞতা ও গবেষণায় দেখেছি- নির্বাচন ছিল স্বচ্ছ, স্বতঃস্ফূর্ত এবং অংশগ্রহণমূলক।

বৃহস্পতিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক ও বিশিষ্টজনদের অভিমত’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি একথা বলেন।

ইলেকশন মনিটরিং ফোরাম ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

 

মেজর জেনারেল (অব.) আবদুর রশিদ বলেন, আমরা নির্বাচনে দেখেছি-সামান্য সংঘাত ও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। তবে সার্বিকভাবে নিঃসন্দেহে বলতে পারি, এটা ছিল সহিংসতামুক্ত নির্বাচন। বিদেশি পর্যবেক্ষকদের মতামতের ওপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে। তাদের মতামতের সাথে আমাদের অবজারভেশন ও গবেষণায় বেশ মিল পাচ্ছি। সেক্ষেত্রে সুস্পষ্টভাবে বলা যায় ওই নির্বাচন ছিল স্বচ্ছ। নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছিল স্বতঃস্ফূর্ত।  

তিনি বলেন, নির্বাচনের প্রতিটি কেন্দ্রে মিডিয়ার মাধ্যমে দেখা গেছে নারী ভোটারদের উপস্থিতি বেশি ছিল। নিরাপত্তার দিক থেকে আমি যদি বলি, নারীরা যখন ভোট দিতে আসেন, তখন নিরাপদ পরিবেশ না পেলে, বাড়ি থেকে ভোট দিতে বের হন না। সেই আঙ্গিকে আমি বলতে পারি, নির্বাচনের জন্য নিরাপদ পরিবেশ রক্ষা করতে পেরেছিল নির্বাচন কমিশন। ফলশ্রুতিতে ভোটকেন্দ্রে নারীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়।  

‘তবে নির্বাচনের পরে আমরা শুনেছি। কেউ কেউ অভিযোগ করে বলেছে- নির্বাচনের ব্যালট বাক্স আগের রাতে ভরাট করে রাখা হয়েছে। তাদের বলতে চাই-নির্বাচনের ব্যালট বাক্স কেন্দ্রে পৌঁছাতে পৌঁছাতে রাত হয়। আর দূরের কেন্দ্র হলে নির্বাচনের দিন ভোরবেলায় কেন্দ্রে পৌঁছায় ব্যালট বাক্স। সেক্ষেত্রে এভাবে ব্যালট বাক্স ভরার কোনো সুযোগ নেই। এসব অস্বচ্ছ ও মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার প্রক্রিয়া বেসিক্যালি রাজনৈতিক। এ প্রক্রিয়া আমাদের রাজনীতিতে চলমান। ’

সভায় কলকাতা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক কমল ভট্টাচার্য বলেন, নির্বাচনের সময় সারা বাংলাদেশ ঘুরে দেখা সম্ভব হয়নি। সারা ঢাকা ঘুরে দেখেছিলাম। নির্বাচনের সময় ঢাকায় যা দেখেছি, যা কানে শুনেছি তাই লিখেছি।  

ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের নির্বাহী পরিচালক ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক আবেদ আলীর সভাপতিত্বে বৈঠকে বক্তব্য রাখেন, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ূন, ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, ঢাকা ওয়াসার চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এম হাবিবুর রহমান, লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমেদ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯
এমএমআই/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।