ঢাকা, সোমবার, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
bangla news

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ভারতের সহায়তা প্রত্যাশা স্পিকারের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০১ ৭:৪৭:০৩ পিএম
মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা।

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা।

ঢাকা: রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ভারতের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের সময় শিরীন শারমিন এ প্রত্যাশার কথা জানান। 

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে শিরীন শারমিন ও ওম বিড়লার এ সৌজন্য সাক্ষাৎ হয়।

মালেতে অনুষ্ঠিত ‘চতুর্থ সাউথ এশিয়ান স্পিকার্স সামিট’ এ যোগ দিতে তারা সেখানে অবস্থান করছেন। জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সাক্ষাতকালে দু’দেশের স্পিকার রোহিঙ্গা ইস্যু, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কার্যক্রম, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ, ই-পার্লামেন্ট প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। 

শিরীন শারমিন ভারতের লোকসভার ১৭তম স্পিকার নির্বাচিত হওয়ায় ওম বিড়লাকে অভিনন্দন জানান। 

শিরীন শারমিন বলেন, ভারত বাংলাদেশের প্রতিবেশী ও ঐতিহাসিক বন্ধু রাষ্ট্র। দু’দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এখন অনন্য উচ্চতায়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের সমর্থনের কথা উল্লেখ করে এজন্য তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। স্পিকার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ভারতের সহায়তা প্রত্যাশার কথা উল্লেখ করেন। 

এসময় ভারতের স্পিকার ওম বিড়লা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়টি ভারত সরকারকে অবহিত করবেন বলে স্পিকার শিরীন শারমিনকে আশ্বস্ত করেন। তিনি বলেন, সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সফর বিনিময়, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ ভবিষ্যতে দু’দেশের সংসদীয় সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৯
এসকে/আরবি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-01 19:47:03