bangla news

হাতিয়ায় সনদ জালের অভিযোগে শিক্ষিকা আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০১ ৪:১০:০৫ পিএম
আটক-প্রতীকী ছবি

আটক-প্রতীকী ছবি

নোয়াখালী: সনদ জাল করে শিক্ষকতা করার অভিযোগে শাহিদা আক্তার রুবি নামে হাতিয়া ডিগ্রি কলেজের এক প্রভাষককে আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। 

রোববার (০১ সেপ্টেম্বর) অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযুক্ত শাহিদা আক্তার নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার  চর কৈলাশ গ্রামের বাসিন্দা কে এম ওবায়েদুল্লাহর স্ত্রী।  

দুদক জানায়, শাহিদা আক্তার রুবি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ’র ২০১০ সনের পরীক্ষার রোল-৪০৬০২৭৯৪, রেজি-১০০০০১২৬২ পরীক্ষা- ষষ্ঠ-২০১০ ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি’র লেকচারার পদে  একটি জাল ও ভুয়া সনদ প্রস্তুত করে হাতিয়া ডিগ্রি কলেজে প্রভাষক (ইসলামের ইতিহাস) হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে এমপিওভুক্ত হয়ে ইনডেক্স নম্বর ৩০৮৪৪২১ মূলে ০১-১১-২০১২ তারিখ থেকে ৩১-০৩-২০১৬ তারিখ পর্যন্ত বেতন ভাতা বাবদ ৫,৩৮,৯৭৫/- টাকা উত্তোলন/গ্রহণ করে আত্মসাৎ করেন। 

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের শিক্ষা পরিদর্শক টুটুল কুমার নাগ এবং অডিট অফিসার গোলাম মুর্তজা গত ০৩-১২-২০১৫ তারিখে নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার হাতিয়া ডিগ্রি কলেজ নিরীক্ষা করলে সনদের সত্যতা নিশ্চিত না হওয়ায় এটিকে জাল সনদ হিসেবে আখ্যায়িত করে। 

নোয়াখালী দুদকের সহকারী পরিচালক সুবেল আহমেদ বলেন, শাহিদা আক্তার রুবি প্রভাষক (ইসলামের ইতিহাস) তার ইনডেক্স নম্বর ৩০৮৪৪২১।তিনি হাতিয়া ডিগ্রি কলেজে দীর্ঘদিন ধরে জাল সনদের মাধ্যমে শিক্ষকতা করে আসছিলেন।

পরে আমরা অনুসন্ধানের মাধ্যমে তার জাল সনদের সত্যতা নিশ্চিত করি। তিনি ওই সনদ গোপন করে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে জালিয়াতি ও প্রতারণামূলকভাবে অপরাধজনক বিশ্বাসভঙ্গ করে সরকারি ৫,৩৮,৯৭৫/- (পাঁচ লাখ আটত্রিশ হাজার নয়শত পঁচাত্তর) টাকা আত্মসাৎ করেছেন যা অনুসন্ধানকালে প্রমাণিত হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নোয়াখালী
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-01 16:10:05