ঢাকা, বুধবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
bangla news

বাংলাদেশ এখন আত্মনির্ভরশীল একটি রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-০১ ৩:১৬:১৭ এএম
‘টেকসই ও মসৃণ স্নাতক: স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় অতিথিরা

‘টেকসই ও মসৃণ স্নাতক: স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় অতিথিরা

চাঁদপুর: বাংলাদেশ এখন আত্মনির্ভরশীল একটি রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। তবে উন্নয়নকে সুষম করতে হবে। উন্নয়ন যদি সুষম না হয় এবং উন্নয়নে যদি সকলের সম্পৃক্ততা না থাকে তাহলে সে উন্নয়ন টেকসই হয় না। তাই আমাদের মসৃণ টেকসই উন্নয়ন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মো. মনোয়ার আহমেদ।

শনিবার (৩১ আগস্ট) চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অর্থ ‘টেকসই ও মসৃণ স্নাতক: স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উদ্যোগে স্থানীয় স্টেক হোল্ডারদের উপস্থিতিতে এ কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

তিনি বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের স্বপ্ন সোনার বাংলা বিনির্মাণে আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত স্বনির্ভর একটি বাংলাদেশ গঠন করা। দেশ এখন বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্ব উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত হতে চলেছে। 

তিনি আরও বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি আমাদের মানবিক উন্নয়ন করতে হবে। আমাদের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। আমরা সকল বিভাগে উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রেখেছি। কেউ কেউ দেশের উন্নয়ন দেখে ঈর্ষান্বিত হয়ে মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছে। বর্তমানে দেশে অন্যান্য দেশের চাইতে মৃত্যুর হার অনেক কমে এসেছে। ডেঙ্গু মোকাবিলায় সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আমরা সফল হয়েছি। ডেঙ্গুর মাত্রা অনেক কমে এসেছে। 

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খানের সভাপতিত্বে ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবিদা সুলতানার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সচিব ও ইডিআরের প্রকল্প পরিচালক আবদুল বাকী ও আনোয়ার হোসেন, চাঁদপুরের পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল সহ সকল উপজেলার জনপ্রতিনিধি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৩১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৯
এমএএম/জেআইএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-01 03:16:17