bangla news

ভরাট খাল-ছোট নদী পুনঃখনন করা হবে: প্রতিমন্ত্রী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-২৯ ৪:৫৬:১৮ পিএম
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

গোপালগঞ্জ: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, খাল ও নদী খননের জন্য আমরা প্রধানমন্ত্রীকে একটি ডেলটা প্ল্যান দিয়েছি। এ প্রকল্পের প্রথম ধাপের ৪৪৮টি খাল ও ছোট নদী পুনঃখননের কাজ চলছে। আগামী বছর দ্বিতীয় ধাপে আরও ৪/৫শ’ খাল ও ছোট নদী পুনঃখনন করা হবে। ২০২১ সালে মধ্যে সব কাজ শেষ। 

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মানিকহার ভাঙন এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশ নদীমাতৃক দেশ। সব জায়গায় নদী ভাঙতে থাকে। নদী শাসন করা হচ্ছে। এ ভাঙনরত করতে হলে সারা বছর নদীগুলো খনন করতে হবে। যা প্রচুর ব্যয়বহুল। তাই আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে হাট বাজার ও লোকালয়ের ভাঙন রোধে কাজ করছি। 

রোহিঙ্গা সমস্যার বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সরকার সবসময় সচেতন রয়েছে। এর একটি শান্তিপূর্ণ সমাধান অচিরেই হবে।

এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডিজি মাহফুজুর রহমান, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মন্টু কুমার বিশ্বাস, প্রধান প্রকৌশলী এ কে এম ওয়াহেদ উদ্দীন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ফরিদপুর অঞ্চলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আবদুল হেকিম, গোপালগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বৈদ্য, মুকসুদপুর উপজেলা চেয়ারশ্যান কাবিল মিয়া, মুকসুদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসলিমা আলী, গোপালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাদিকুর রহমান খান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   গোপালগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-29 16:56:18