bangla news

ময়নাতদন্তের জন্য দাফনের ৩ মাস পর ছাত্রীর মরদেহ উত্তোলন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-২৯ ১২:৪৯:৩৫ পিএম
দাফনের ৩ মাস পর ছাত্রীর মরদেহ উত্তোলন। ছবি: বাংলানিউজ

দাফনের ৩ মাস পর ছাত্রীর মরদেহ উত্তোলন। ছবি: বাংলানিউজ

গোপালগঞ্জ: পুনরায় ময়না-তদন্তের জন্য গোপালগঞ্জে দাফনের প্রায় তিন মাস পর স্কুলছাত্রী লামিয়া ইসলামের (১২) মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

লামিয়া সদর উপজেলার ডুমদিয়া গ্রামের সেনা সদস্য নূর ইসলামের মেয়ে ও রংপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) সকালে আদালতের নিদের্শে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিলন সাহার উপস্থিতিতে লামিয়ার মরদেহটি উত্তোলন করা হয়।

এসময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক ফতেহ মো. ইফতেখারুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

গত ০৭ জুন মায়ের সঙ্গে ডুমদিয়া থেকে একই উপজেলার তালা গ্রামে মামা বাড়িতে বেড়াতে যায় লামিয়া। পরের দিন ০৮ জুন সেখানে ঝুলন্ত অবস্থায় লামিয়ার মরদেহ পাওয়া যায়। লামিয়া আত্মহত্যা করেছে বলে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। পরে এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ আদালতে একটি মামলা দায়ের হয়। বর্তমানে মামলাটি সিআইডি তদন্ত করছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   গোপালগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-29 12:49:35