ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে ভাঙচুর-মারধরের অভিযোগে মামলা

সাভার করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-২৩ ২:৩৮:৫০ এএম
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

আশুলিয়া (ঢাকা): সাভারের আশুলিয়ায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র পিএইচএ ভবনের প্রবেশপথ সংলগ্ন দু’পাশের স্থাপনা ভাঙচুর ও মারধরের অভিযোগে কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

বুধবার (২১ আগস্ট) রাতে নাছির উদ্দিন নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় এ মামলা (নং-৪৭) দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) রাতে বাংলানিউজকে বিষয়টি জানান আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ।

মামলায় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ছাড়াও ৭৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। অন্য আসামিদের মধ্যে রয়েছেন- গণস্বাস্থ্যের নির্বাহী পরিচালক সাইফুল ইসলাম শিশির, ড. আ. কাদের, প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্দুস সালাম, গোলাম মোস্তফা বাবু, আলমগীর হোসেন, মো. সোহেল, আওলাদ হোসেন, রাসেল, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মুরতজা আলী বাবু, ডা. রেজাউল হক, ইশরাফিল, জুয়েল রানা, লুৎফর রহমান, আবুল কালাম, আব্দুস সামাদ, মুজাহিদ, সেন্টু, ইকরাম, আরিফ, অন্তু।

বাদী নাছির উদ্দিন সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক। তিনি আশুলিয়ার নলাম এলাকার বাসিন্দা।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আশুলিয়ার বাঁশবাড়ি মৌজায় নাছির উদ্দিন ও তার ভাই আবু বক্করের ১৬ শতাংশ জমি আছে। ওই জমিতে তাদের পিতা হাজি এফাজ উদ্দিনের নামে একটি মার্কেট রয়েছে। ওই মার্কেটে একটি হোটেলসহ ২০টি দোকান রয়েছে। জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নির্দেশে অন্যান্য আসামিরা গত মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) গভীর রাতে হামলা চালিয়ে হোটেলসহ ১৪টি দোকান ভাঙচুর করেন। এতে প্রায় ৬০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়। এছাড়া আসামিরা ২টি এসি, ৩টি ফ্রিজ, ১টি এলইডি টেলিভিশন, ৯টি সিলিং ফ্যান, সাউন্ড সিস্টেম, স্বর্ণের চেইন ও নগদ অর্থ লুট করেন। এছাড়া ওই জমিতে গেলে জমির মালিকদের হত্যা করার হুমকি দেন আসামিরা। হামলার সময় হোটেলের মালিক সাজ্জাদ হোসেনকে ধরে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করা হয়। আসামিরা সাজ্জাদের গলা টিপে ধরে হত্যাচেষ্টা চালান।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাম কৃষ্ণ বাংলানিউজকে বলেন, নাছির উদ্দিনের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এবং পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা প্রমাণ পাওয়ায় মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে আসামিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

বাংলাদেশ সময়: ০২৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৩, ২০১৯
এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-23 02:38:50