ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

‘এস্টেট অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন বসুন্ধরা চেয়ারম্যান

ভাস্কর সরদার, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-২১ ১০:৫৯:৪৭ পিএম
দিল্লির একটি পাঁচতারকা হোটেলে বসুন্ধরা চেয়ারম্যানের হাতে এ সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়

দিল্লির একটি পাঁচতারকা হোটেলে বসুন্ধরা চেয়ারম্যানের হাতে এ সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়

বাংলাদেশে দৃষ্টান্তমূলক আবাসিক এলাকা স্থাপনের জন্য ভারতের দিল্লিতে ‘বিজনেস লিডার অব দ্য ইয়ার ইন রিয়েল এস্টেট, বাংলাদেশ’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন বসুন্ধরা গ্রুপ চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। আন্তর্জাতিক ক্যাটাগরিতে এবছর অ্যাওয়ার্ডটি পান তিনি।

বুধবার (২১ আগস্ট) রাতে দিল্লির একটি পাঁচতারকা হোটেলে বসুন্ধরা চেয়ারম্যানের হাতে অ্যাওয়ার্ডটি তুলে দেন রিম্যাক্স গ্লোবাল অ্যালায়েন্সের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক রিগ্যান।

রিম্যাক্স ইন্ডিয়া, ফ্র্যাঞ্চাইজি ইন্ডিয়া ম্যাগাজিন, টেলিভিশন জি বিজনেস এই অ্যাওয়ার্ডটি প্রদান করে। 

আয়োজকদের পক্ষে বাংলাদেশের শীর্ষ এই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বলা হয়, রিয়েল এস্টেট ব্যবসাকে কীভাবে আন্তর্জাতিকমানের করা যায় তা করে দেখিয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। 

অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে নিজের প্রতিক্রিয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপ চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, দেশের সব মানুষের আবাসন নিশ্চিত করার জন্য আমরা কাজ করে চলেছি। আমাদের সরকার, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে সবরকম সহযোগিতা করছেন। আশা করি বাংলাদেশ এ বিষয়ে আরো উন্নতি করবে।

ভারতে কী ভবিষ্যতে রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগ করবেন? এমন প্রশ্নে বসুন্ধরা চেয়ারম্যান বলেন, ভারত আমাদের সবকিছুর বন্ধু। আমরা আজও মনে করি ভারত আমাদের সবচেয়ে আপন। আমরা ভারতে এসে ব্যবসা করবো এবং ভারত বাংলাদেশে ব্যবসা করবে এটাই স্বাভাবিক। এরইমধ্যে বসুন্ধরা সিস্টার কনসার্ন বসুন্ধরা টিস্যু ভারতে বিক্রি হচ্ছে। আশা করি ভবিষ্যতে আমরা রিয়েল এস্টেটে আসতে পারবো।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বসুন্ধরা চেয়ারম্যানঅনুষ্ঠানে উপস্থিত দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের সিইও নঈম নিজাম বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ যে কাজটি করে সেটি সবসময় বড় কাজ করারই চেষ্টা করে। বাংলাদেশে আবাসনখাতে যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছে বসুন্ধরা গ্রুপ এবং তারই মূল্যায়ন আজ দিল্লিতে দেওয়া হল। বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান যে অ্যাওয়ার্ড পেলেন তাতে বসুন্ধরা গ্রুপের আবাসনখাত আরো উন্নত হবে। এই অবদানে বসুন্ধরা গ্রুপের আমরা প্রত্যেকটি মানুষ আজ খুশি। বসুন্ধরা গ্রুপে যারা কর্মরত শুধু তাদের কাছে আনন্দের বিষয় নয়, এটি বাংলাদেশের কাছেও আনন্দের বিষয়। কারণ বাংলাদেশে বসুন্ধরা গ্রুপের বড় অবদান আছে।

এর আগে হোটেলে দুই দিনের কনভেনশনের আয়োজন করে প্যাসিফিক ইন্ডিয়া। কনভেনশনের শেষদিন বুধবার ছিলো অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। এবার এটি ছিলো প্যাসিফিক ইন্ডিয়ার ১১তম কনভেনশন।

কনভেনশনে ভারতের ২৯টি রাজ্যের ১০ হাজার রিয়েল এস্টেটের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রথমবার বাংলাদেশের নাম যুক্ত হয়। আর প্রথমবার যোগ দিয়েই ‘এস্টেট অ্যাওয়ার্ড’র মুকুট অর্জন করে বসুন্ধরা গ্রুপ।

কেন এই অ্যাওয়ার্ডের গুরুত্ব এবং কেন পেলো বসুন্ধরা গ্রুপ? আয়োজকদের পক্ষে এ বিষয়ে বলা হয়, প্রথমত কোটি রুপির ব্যবসায় লাভ করলেও এই কনভেনশনে যোগ দেওয়া যায় না। সেই প্রতিষ্ঠান যোগ দিতে পারে যারা শুধুমাত্র অর্থনৈতিক রোজগারের কারণে একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে না। পাশাপাশি সামাজিক জনকল্যাণমূলক কাজে নিযুক্ত। যেমন- হাসপাতাল, দুঃস্থদের সেবা, বন্যা বা ভূমিকম্পে ত্রাণ ইত্যাদি। এছাড়া আরো কিছু মাপকাঠি থাকে এই কনভেনশনে যুক্ত হওয়ার জন্য। অর্থাৎ যে কেউ চাইলেই এই কনভেনশনে যুক্ত হতে পারবে না। সে কারণেই ভারতের রিয়েল এস্টেট কনভেনশন লক্ষ্য করেছে এবং তাদের নিয়মের সঙ্গে মিলছে বসুন্ধরা গ্রুপ। আর সে কারণেই বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানের হাতে তুলে দেওয়া হয় রিয়েল এস্টেট সম্মাননা। 

অনুষ্ঠানে রিম্যাক্স’র এমডি গৌরব বলেন, ভারত-বাংলাদেশ প্রতিবেশী রাষ্ট্র। আমরা সবসময় চাই বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে। কিন্তু ওখানে কাদের হাত ধরা উচিত হবে, রিয়েল এস্টেট খাতে কাজ করতে গেলে সেটাই দেখার বিষয়। এক্ষেত্রে বসুন্ধরা গ্রুপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আমাদের মনে হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২১, ২০১৯
ভিএস/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-21 22:59:47