bangla news

সাতক্ষীরায় তৈরি হচ্ছে স্যানেটারি ন্যাপকিন ‘প্রজাপতি’

শেখ তানজির আহমেদ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-২১ ৯:৪৫:৩৭ পিএম
স্যানেটারি ন্যাপকিন প্রজাপতি

স্যানেটারি ন্যাপকিন প্রজাপতি

সাতক্ষীরা: কিশোরী স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সাতক্ষীরায় উৎপাদিত হচ্ছে উন্নতমানের স্যানেটারি ন্যাপকিন ‘প্রজাপতি’। প্রশিক্ষিত কর্মীদের হাতের সুনিপুণ ছোঁয়ায় তৈরি এই স্যানেটারি ন্যাপকিন কিশোরী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে।

জানা গেছে, সরকার মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মাধ্যমে ‘নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন ও কিশোরী স্বাস্থ্য সুরক্ষায় স্যানেটারি ন্যাপকিন প্রস্তুত ও বিতরণ’ শীর্ষক একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

পরীক্ষামূলক এই প্রকল্পের আওতায় দেশের ৩২টি জেলায় স্থানীয় নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের মাধ্যমেই তৈরি করা হচ্ছে স্যানেটারি ন্যাপকিন।
 
প্রকল্প আওতাভুক্ত জেলা সাতক্ষীরায় উৎপাদিত এসব ন্যাপকিন বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে জেলার চারটি বিদ্যালয়ের কিশোরী শিক্ষার্থীদের মধ্যে।

সাতক্ষীরা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কার্যালয় সূত্র জানা যায়, স্যানেটারি ন্যাপকিন উৎপাদনের লক্ষে আটজন নারী উদ্যোক্তাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তারা সপ্তাহে একদিন সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ঢাকা থেকে আনা কাঁচামাল ব্যবহার করে স্যানেটারি ন্যাপকিন উৎপাদন করে থাকে। দিনে ৫০টির মতো ন্যাপকিন উৎপাদন হয়।

স্যানেটারি ন্যাপকিন উৎপাদনে নিয়োজিত নারী উদ্যোক্তারা বাংলানিউজকে জানান, সুতা কাটা, রোলিং, নেটিংয়ের কাজ হাতে করা হয়। আর মেশিনের সেলাই করা হয়। পরে তা নির্ধারিত মেশিনে ৪০ মিনিট রেখে জীবাণু মুক্ত করে প্যাকেটজাত করা হয়।
 
কিশোরী শিক্ষার্থীদের ঝরেপড়া রোধে উৎপাদিত এই  ন্যাপকিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

এ প্রসঙ্গে সাতক্ষীরা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপপরিচালক (অ. দা.) নাজমুন নাহার বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের দেশে পিরিয়ড়কালীন কিশোরীরা এক অনাকাঙ্ক্ষিত সংকটে পড়ে। তারা না পারে বলতে, না পারে ন্যাপকিন চাইতে। অনেক সময় স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়, অনেকে ঝরে পড়ে। এজন্য মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর পরীক্ষামূলক বিনামূল্যে ন্যাপকিন বিতরণের এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এতে নারীদের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে যেমন ক্ষমতায়ন সম্ভব, তেমনি কিশোরীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায়ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২১, ২০১৯
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-21 21:45:37