ঢাকা, শনিবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

বন্দরে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির ম্যানেজারকে কুপিয়ে জখম

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-১৭ ৫:৫৪:৩৭ পিএম
নারায়ণগঞ্জ ম্যাপ।

নারায়ণগঞ্জ ম্যাপ।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির ম্যানেজার ও তার মাকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। ওই সময় তাদের ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুরসহ ঘরে থাকা নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও ২ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকারও নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

শনিবার (১৭ আগস্ট) ভোরে উপজেলার ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের রামনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

আহত দু’জন হলেন- ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির নবীগঞ্জ ইউনিটের ম্যানেজার মনির হোসেন (৪০) ও তার মা তেহারুন বেগম (৬২)। তাদের মধ্যে মনিরকে গুরুতর অবস্থায় প্রথমে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত মনিরের স্ত্রী সালমা বেগম বাংলানিউজকে জানান, বন্দরের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত আমির চানের ছেলে ইলিয়াস মেম্বার ও তার সন্ত্রাসী ছেলেরা দীর্ঘদিন ধরেই এলাকায় মাদক বিক্রিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল। এসব অপকর্ম বন্ধ করার জন্য প্রতিনিয়তই বাধা দিয়ে আসছিল তার স্বামী মনির। বিভিন্ন সময়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর মাধ্যমেও তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দমনের চেষ্টা করেছে মনির। যার ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (১৬ আগস্ট) বিকেলে সন্ত্রাসীরা মনিরকে হত্যার হুমকি দেয়। পরে নিরাপত্তার স্বার্থে ওইদিনই সন্ধ্যায় বন্দর থানায় জিডি করেন মনির। 

পরবর্তীতে শনিবার ভোর ৬টায় ইলিয়াস মেম্বার ও তার সন্তান তানসেন, রুবেল, সাদ্দাম, শামীম, আক্তারসহ তাদের সহযোগী একই এলাকার ডাকাত সুমন ও কালুসহ ১৫ থেকে ২০ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে মনিরের বাড়িতে হানা দেয়।

মনির ঘুমিয়ে থাকায় সন্ত্রাসীরা তাকে ডেকে এনে হত্যার উদ্দেশ্যে নৃশংসভাবে কোপায়। তাকে উদ্ধারে তার মা তেহারুন বেগম এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা তাকেও এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে। হামলাকারীরা মনিরের ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর করে ঘরে থাকা নগদ ৫৫ হাজার টাকা ও ২ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকারও নিয়ে যায়। পরে আহতদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে মনিরকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, এ ব্যাপারে আমরা অভিযোগ পেয়েছি। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১৯
এসএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নারায়ণগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-17 17:54:37