ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ আগস্ট ২০১৯
bangla news

ফেলে যাওয়া চামড়ায় দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-১৪ ৪:৪৪:২২ পিএম
ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ফেলে রাখা চামড়া। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ফেলে রাখা চামড়া। ছবি: বাংলানিউজ

নারায়ণগঞ্জ: বিভিন্ন এলাকা থেকে সংগ্রহ করা চামড়া বিক্রি না হওয়ায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ফেলে রেখে গেছেন ব্যবসায়ীরা। দু’দিন ধরে পড়ে থাকা এ চামড়ার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ স্থানীয়ারা। এ পথে চলাচল করা সাধারণ মানুষ এ অবস্থায় দ্রুত যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

বুধবার (১৪ আগস্ট) বিকেলে দেখা যায়, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে পড়ে আছে প্রায় শতাধিক চামড়া। 

স্থানীয়রা জানান, বিভিন্ন এলাকা থেকে চামড়া কিনে এবার ধরা খেয়েছেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। চামড়ার দাম এতোটাই কম যে কেউ কেউ বিক্রিই করতে পারেননি। মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষরা যারা চামড়া নিয়েছেন তারা এগুলো বিভিন্ন স্থানে মাটি চাপা দিলেও মৌসুমি ব্যবসায়ীরা তা না করে চামড়াগুলো ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ফেলে গেছেন। এতে দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। পাশাপাশি পরিবেশও দূষিত হচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী রমজান আলী জানান, এভাবে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে ময়লা আবর্জনার সঙ্গে চামড়াগুলো ফেলা ঠিক হয়নি। এতে দুর্গন্ধে টিকা যাচ্ছে না। মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) দুর্গন্ধ কম ছিল, কিন্তু বিকেল থেকে একেবারেই খারাপ অবস্থা। দ্রুত এটি অপসারণ না করলে এ পথে চলাচল করাও দুষ্কর হয়ে উঠবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক বাংলানিউজকে জানান, আমার কাছে আরও কয়েকজন অভিযোগ করেছে, আমি সংবাদটি পেয়েছি। এটা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মধ্যে, আমার কিছু কাজ আছে শেষ করেই ঘটনাস্থলে যাবো।

এ বিষয়ে নাসিকের প্রধান নির্বাহী (সিও) শাহ এহতেশামুল হক বাংলানিউজকে জানান, এটি নাসিকের বাইরে ইউনিয়ন পরিষদের অধীনের জায়গায়। আমি দায়িত্ব নিয়েই বলছি আমার সিটি করপোরেশনের মধ্যে কোনো আবর্জনা নেই, থাকলে আমাকে জানান, আমরা সঙ্গে সঙ্গেই তা পরিষ্কার করে দেবো। তবে যদি কেউ আমাদের কাছে সহযোগিতা চায় তাহলে আমরা সহযোগিতা করবো। 

এটার পাশেই নম পার্ক ও ফতুল্লা স্টেডিয়াম কিন্তু এগুলোতে তো আমাদের নাসিকের কোনো হোল্ডিং নম্বর নেই। আমরা আমাদের সীমানা সম্পর্কে অবহিত রয়েছি বলেও জানান সিও শাহ এহতেশামুল।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১৯
আরআইএস/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নারায়ণগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-14 16:44:22