ঢাকা, বুধবার, ৫ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ আগস্ট ২০১৯
bangla news

তুরাগে ট্যাক্সিক্যাব: এখনও চলছে উদ্ধার অভিযান

সাভার করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-২২ ১২:৩৮:৪২ পিএম
‘এঙ্কর’ ফেলে চলছে উদ্ধার অভিযান, ছবি: বাংলানিউজ

‘এঙ্কর’ ফেলে চলছে উদ্ধার অভিযান, ছবি: বাংলানিউজ

সাভার (ঢাকা): সাভারের আমিনবাজারের সালেহপুর ব্রিজে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তুরাগ নদে পড়ে যাওয়া ট্যাক্সিক্যাবটি উদ্ধারে এখন ‘এঙ্কর’ দিয়ে চলেছে অভিযান।

নদটিতে স্রোতের পরিমাণ বেশি থাকায় ডুবুরি দল কাজ করতে পারছে না। তাই ‘এঙ্কর’ ফেলে উদ্ধার অভিযান কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ঢাকা-৪ এর জোন কমান্ডার আনোয়ারুল হক।

সোমবার (২২ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে ‘এঙ্কর’ ফেলে উদ্ধার কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল।

জোন কমান্ডার আনোয়ারুল হক বাংলানিউজকে বলেন, রোববার দিবাগত রাত ৮টার দিকে সালেহপুর ব্রিজে ট্যাক্সিক্যাবটি পড়ে যাওয়ার পর রাত ১টা থেকে সেটি উদ্ধারে পাঁচ সদস্যের একটি ডুবুরি দল কাজ করে। পরে সকালে আরও দুইজন ডুবুরিকে যুক্ত করে উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। তবে এই নদটিতে প্রচুর স্রোত থাকায় ডুবুরিদের অক্সিজেন মাস্ক খুলে যাচ্ছিলো ও তারা পানির নিচে থাকতে পারছিলেন না। তাই সকাল সাড়ে ১১টা থেকে ‘এঙ্কর’ ফেলে খোঁজা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ব্রিজটির পাশে প্রতি ২০ ফুট পরপর রশি বাঁধা ‘এঙ্কর’ ফেলে টেনে টেনে দেখা হচ্ছে। এখনও ট্যাক্সিক্যাবটির কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে চালক ও গাড়িটির মালিকানা পরিচয় পাওয়া গেছে। আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট পরিচালিত ট্রাস্ট ট্রান্সপোর্ট সার্ভিসের এক্সিও ২০১২ মডেলের গাড়ি এবং চালকের নাম জিয়াউর রহমান (৪০)। তার বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারিতে।

রোববার রাত ৮ টার দিকে ঢাকাগামী হলুদ রঙের একটি ট্যাক্সিক্যাব ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আমিনবাজার সালেহপুর ব্রিজ এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তুরাগ নদীতে পড়ে যায়। ঘটনার পর রাত থেকে ট্যাক্সিক্যাবটি উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ২২, ২০১৯
টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সাভার
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-22 12:38:42