bangla news

সংস্কার শেষে কক্সবাজার হাসপাতালের জরুরি বিভাগ উদ্বোধন

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-২০ ৮:২৩:৩২ পিএম
কক্সবাজার সদর হাসপাতালের নতুনভাবে সংস্কার করা জরুরি বিভাগ উদ্বোধন

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের নতুনভাবে সংস্কার করা জরুরি বিভাগ উদ্বোধন

ঢাকা: কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের নতুনভাবে সংস্কার করা জরুরি বিভাগ উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার (২০ জুলাই) এ  হাসপাতালে জরুরি বিভাগকে নতুনভাবে উদ্বোধন করা হয়। 

আন্তর্জাতিক রেড ক্রস কমিটি (আইসিআরসি) সংস্কার কাজের অর্থায়ন ও বাস্তবায়ন করেছে। শনিবার ঢাকার আইসিআরসির অফিস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, আইসিআরসি সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করছে। হাসপাতালটি জেলার স্থানীয় জনগণ ও রাখাইন থেকে কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া মানুষদের উন্নত চিকিৎসার প্রধান ভরসাস্থল। তাই আন্তর্জাতিক বিভিন্ন স্বীকৃত মানদণ্ড অনুযায়ী জরুরি স্বাস্থ্য সেবার মান বাড়ানোর লক্ষ্যে আইসিআরসি সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সংস্কার কাজ বাস্তবায়ন করেছে।

জরুরি বিভাগকে নতুনভাবে সংস্কারের অংশ হিসেবে আইসিআরসি অবকাঠামো পুনর্বাসন, আসবাবপত্র, বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম সহায়তা হিসেবে দিয়েছে। পাশাপাশি জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ও নার্সদের বিশেষজ্ঞ প্রশিক্ষকরা প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন, যেন রোগী সর্বোচ্চ সেবা পেতে পারে। এছাড়াও যেকোনো মানবসৃষ্ট বা প্রাকৃতিক দুর্যোগে কারণে যদি ব্যাপকভাবে হতাহতের ঘটনা ঘটে সেক্ষেত্রে রেফারেল সিস্টেম ব্যবস্থাপনার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কাজ করবে আইসিআরসি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিআরসি কক্সবাজার অফিসের প্রধান সাবরিনা ডিনংক বলেন, এটা শুধু আন্তর্জাতিক মানের বিষয় নয়, এটি জীবন বাঁচানোর জন্য। যদি রোগীদের সঠিক সময়ে চিকিৎসা দেওয়া যায় তাহলে তাদের বাঁচানোর হার অনেক বেশি বাড়ানো সম্ভব।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগকে সহায়তা দিতে ২০১৮ সালের ১২ আগস্ট, আইসিআরসি এবং  স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে তিন বছর মেয়াদি সমঝোতা স্মারক সই করেছিল। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিআরসি বাংলাদেশের হেড অফ ডেলিগেশন জেরার্ড পেট্রিগনেট, কক্সবাজার সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মহিউদ্দিন, আইসিআরসি কক্সবাজার  অফিসের হসপিটাল প্রজেক্ট ম্যানেজার রিচার্ড উইলিয়ম কুকসহ আইসিআরসি এবং সরকারি কর্মকর্তাসহ অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা জনগোষ্ঠীর কারণে উখিয়া এবং টেকনাফে স্বাস্থ্য সেবার ওপর যে বাড়তি চাপ তৈরি হয়েছে সেটি মোকাবেলায় আইসিআরসি ও বাংলাদেশে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি (বিডিআরসিএস)সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন ক্যাম্প-সীমান্ত এলাকা যেমন তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়ায় ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিমের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে আসছে। ২০১৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত  প্রায় ১ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি মানুষ এ সেবা পেয়েছেন। 

পাশাপাশি ২০১৪ সাল থেকে আইসিআরসি ও বাংলাদেশে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি (বিডিআরসিএস) উখিয়া ও টেকনাফের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  জনবল নিয়োগ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, চিকিৎসা সরঞ্জামসহ অন্যান্য সহায়তা দিয়ে আসছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৬ ঘণ্টা, জুলাই ২০, ২০১৯
টিআর/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-20 20:23:32