ঢাকা, সোমবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ আগস্ট ২০১৯
bangla news

পাটুরিয়ায় অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ ট্রাক চালকদের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৯ ৫:১৬:৪৪ পিএম
পাটুরিয়া ঘাট। ছবি: বাংলানিউজ

পাটুরিয়া ঘাট। ছবি: বাংলানিউজ

মানিকগঞ্জ: ‘আমরা যারা ট্রাক ড্রাইভার তারা তো মানুষ না। ফেরি পারের জন্য অতিরিক্ত টাকা দিয়ে টিকিট নিয়েও ফেরিতে উঠতে পারছি না। গত ১৬ তারিখে ১০৬০ টাকার টিকিট কিনেছি ১৮০০ টাকা দিয়ে, তারপরও ফেরির দেখা পাইনি।’

কথাগুলো বাংলানিউজকে বলছিলেন ঢাকা থেকে আসা বেনাপোলগামী ট্রাক চালক বাবুল মিয়া।

সরেজমিনে পাটুরিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, পদ্মায় উজানের পানির প্রবল স্রোতে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। স্রোতের প্রতিকূলে চলতে গিয়ে বিকল হচ্ছে ফেরি, দেখা দিয়েছে ফেরি সংকট। পারাপারে দ্বিগুনের চেয়েও বেশি সময় লাগছে। এরফলে পাটুরিয়া ঘা‌টে পাঁচ শতা‌ধিক পণ্যবোঝাই ট্রাক এবং দুই শতা‌ধিক বাস পারের অপেক্ষায় রয়েছে। এ অবস্থার কারণে দুই-তিনদিন ধরে পার হতে না পারায় ট্রাকচালক ও হেলপাররা পড়েছে সীমাহীন দুর্ভোগে।

যশোরগামী ট্রাকচালক মুহাম্মদ মামুন বাংলানিউজকে বলেন, আমি ঢাকা থেকে আসছি আজ তিনদিন। গত রাতে ১০৬০ টাকার টিকিট ২২০০ টাকা দিয়া নিছি তবুও টার্মিনালে পারের অপেক্ষায় বসে আছি। কখন সিরিয়ালে পড়বো, তারপরে না ফেরিতে উঠতে পারবো। আমরা বাধ্য হয়ে টিসির লোকজনকে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে টিকিট নিচ্ছি তা না হলে কয়দিন অপেক্ষা করতে হবে তা একমাত্র আল্লাহ্ জানেন। 

পাটুরিয়া বিআইডব্লিউটিসির টিকিট কাউন্টারের টিএ মামুন সরকার বাংলানিউজকে বলেন, আমারা মাঝে মাঝে কিছু টিকিট থেকে ২০০-৩০০ টাকা বেশি নেই তবে হাজার টাকার বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আর কিছু জানতে চাইলে আমাদের টিম লিডার রয়েছে তারা ভালো বলতে পারবে।

বাংলাদেশ অভন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিনি) আরিচা ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সালাউদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, পদ্মায় স্রোত বেড়েছে। স্রোতের কারণে এ নৌরুটের সবগুলো ফেরি চলাচল করতে পারছে না। ট্রাক থেকে অতিরিক্ত কোনো টাকা নেওয়া হচ্ছে না তবে কেউ যদি এ কাজ করে তার দায়ভার আমরা নিবো না।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   মানিকগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-19 17:16:44