ঢাকা, সোমবার, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯
bangla news

চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকে কুপিয়ে জখম

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৯ ৭:৪৬:০২ এএম
ছবি:বাংলানিউজ

ছবি:বাংলানিউজ

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা শোয়েব রিগানকে উপর্যপুরি কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) রাত সাড়ে ১১টার দিকে শহরের জ্বিনতলা মল্লিক পাড়া এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। রাতেই মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শহরের মাঝের পাড়ার আজম আলীর ছেলে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের নেতা শোয়েব রিগান রাতে মটর সাইকেলযোগে ওই এলাকা দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় রাহেলা খাতুন গালর্স একাডেমির পেছনে পৌঁছালে ৫/৬ জনের একটি দুর্বৃত্ত দল তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: মশিউর রহমান জানান, ধারালো চাপাতি দিয়ে উপর্যপুরি কোপানোর ফলে রিগানের দুই পা ও বাম হাতসহ শরীরের অন্তত ৪০টি স্থান ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে। বিশেষ করে দুই পা ও বাম হাতে কোপ দেওয়া হয়েছে অসংখ্যাবার। প্রচুর রক্তক্ষরণের কারণে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ কারণে আমরা চুয়াডাঙ্গা থেকে রিগানকে ঢাকা পঙ্গুতে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি। রাতেই অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে ছাত্রলীগ নেতা শোয়েব রিগানের ওপর হামলার খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গার অতি: পুলিশ সুপার মো: কলিমুল্লাহ, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদসহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারাসহ জেলা ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতারা হাসপাতালে ছুটে যান।

অতি: পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মো: কলিমুল্লাহ জানান, কারা এ হামলার সাথে জড়িত তাদেরকে খুঁজে বের করে গ্রেফতারের অভিযান শুরু হয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে মোতায়েন করা হয়েছে অতি:পুলিশ।

অপরদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শাহাবুল হোসেন জানান, শোয়েব রিগান কলেজ ছাত্রলীগের নেতা হলেও চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের প্রস্তাবিত কমিটির সহ-সভাপতি হিসাবে মনোনীত ছিলেন। ন্যাক্কারজনক এই হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দোষী ব্যক্তিদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৪৩  ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০১৯
এমএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-19 07:46:02