ঢাকা, শনিবার, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ জুলাই ২০১৯
bangla news

ভোলায় মেঘনার পানি বিপদসীমার ওপরে, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

ছোটন সাহা, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৪ ৫:৩১:১৪ পিএম
বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মেঘনার পানি। ছবি: বাংলানিউজ

বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মেঘনার পানি। ছবি: বাংলানিউজ

ভোলা: ভোলায় মেঘনার পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে জেলার তিন উপজেলায় প্লাবিত হয়েছে অন্তত ৩৫টি গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন লাখো মানুষ। 

পানিতে তলিয়ে গেছে বসত-ভিটা, ফসলি জমি ও রাস্তা-ঘাটসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন নদীর তীরবর্তী এলাকার মানুষ। পাহাড়ি ঢল ও পূর্ণিমায় সৃষ্ট জোয়ারের চাপে এসব এলাকা প্লাবিত হয়েছে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।
 
পাউবো জানায়, রোববার (১৪ জুলাই) মেঘনার পানি বিপদসীমার ৯৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে তজুমদ্দিন, চরফ্যাশন ও মনপুরা উপজেলার বাঁধের বাইরের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

পাউবো ডিভিশন-২ নির্বাহী প্রকৌশলী কাওছার আলম বাংলানিউজকে বলেন, মনপুরা উপজেলার মনপুরা, হাজিরহাট, উত্তর ও দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের ১০টি গ্রাম, তজুমদ্দিন উপজেলার সোনাপুর, চাচড়া ও সাদপুর ইউনিয়নের ১২টি গ্রাম ও চরফ্যাশনের মাদ্রাজ ও আসলামপুর ইউনিয়নের চারটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। তবে বাঁধের বাইরের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হলেও বাঁধের ভেতরে কোথাও পানি ওঠেনি।
 
তিনি আরও বলেন, জোয়ারের পানির তীব্রতার কারণে চরম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে তিন উপজেলার ২৬ কিলোমিটার বাঁধ। ঝুঁকিপূর্ণ কিছু এলাকায় বাঁধ মেরামতের কাজ চলছে।

এদিকে, জোয়ারের পানিতে ঢালচর, কুকরী-মুকরী ও চরপাতিলাসহ বেশ কিছু গ্রাম প্লাবিত হওয়ার তথ্য জানান স্থানীয় বাসিন্দারা। 
জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে ইলিশা ফেরিঘাট। ছবি: বাংলানিউজ
অপরদিকে, জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ইলিশা ফেরি ও লঞ্চঘাট। পানিতে ঘাটের র‌্যাম (ফেরিতে ওঠা-নামার পথ) ও গ্যাংওয়ে তলিয়ে যাওয়ায় ফেরিতে ওঠা-নামা করতে পারছেনা কোনো যানবাহন।

ফেরির ঘাট সহকারী হেলাল উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, জোয়ারের পানিতে ঘাট প্লাবিত হওয়ায় সৃষ্টি হয়েছে দীর্ঘ যানজটের। শিগগিরই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ভোলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-14 17:31:14