ঢাকা, বুধবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৪ জুলাই ২০১৯
bangla news

নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস জানাতে হবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১২ ১০:০৮:১৫ পিএম
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ছবি: শাকিল আহমেদ

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: ‘নতুন প্রজন্মকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে’- এমনটাই বলেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে অনুসন্ধানী প্রামাণ্যচিত্র ‘ক্ষমাহীন নৃশংসতা’র উদ্বোধনী প্রদর্শনী ও আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।  

ইতিহাস বিকৃতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী দিনে একটি সুন্দর বাংলাদেশের জন্য নতুন প্রজন্মের কাছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে। তারা যেনো জানতে পারে- কিভাবে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে, কিভাবে আমরা নির্যাতিত হয়েছি, কিভাবে আমাদের ওপর অত্যাচার ও অবিচার করা হয়েছে এবং কিভাবে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। 

তিনি আরও বলেন, আজকে যারা বঙ্গবন্ধুর ওপর কালিমা লেপন করতে চায়, তারা নিজেরাই অপমানিত হবেন। এতে বঙ্গবন্ধুর কিছুই হবে না। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে এবং এটাই সত্য। আজকে সবাইকে আওয়ামী লীগ করতে হবে এমনটা নয়। তবে তাদের অবদানের কথা অস্বীকার করার কোনো কারণ নেই। 

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক বদরুল আনম ভূঁইয়া এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নির্মাতা ফুয়াদ চৌধুরী।

আলোচনা শেষে প্রদর্শিত হয় শিক্ষক, টেলিভিশর ব্যক্তিত্ব ও নির্মাতা ফুয়াদ চৌধুরী নির্মিত অনুসন্ধানী প্রামাণ্যচিত্র ‘ক্ষমাহীন নৃশংসতা’।

প্রামাণ্যচিত্রে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের সাংবাদিক, সেনা কর্মকর্তা, সরকারি কর্মকর্তা, কবি, লেখক ও সাধারণ মানুষের ভাবনা এবং পূর্ব পাকিস্তানে চালানো নৃশংসতার কথা তুলে ধরা হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ২২০৭ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৯
আরকেআর/এসএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-12 22:08:15