ঢাকা, শনিবার, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ জুলাই ২০১৯
bangla news

সিলেটের উন্নয়নে নভেম্বরে ‘টুইন সিটি’ চুক্তি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ৯:৩৬:৫৩ পিএম
আলোচনা সভায় অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

আলোচনা সভায় অতিথিরা, ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট: সিলেট চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজের প্রশাসকের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছে যুক্তরাজ্য ওয়েলস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের (ডব্লিউবিসিসি) প্রতিনিধি দল।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুর ২টায় নগরের জেল রোডে চেম্বার মিলনায়তনে প্রতিনিধি দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সিলেট চেম্বারের প্রশাসক আসাদ উদ্দিন আহমদ।

সভায় ওয়েলস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের সেক্রেটারি জেনারেল মাহবুব নুর ম্যাবস বলেন, সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সঙ্গে ওয়েলস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের গভীর সম্পর্ক রয়েছে। ইতোমধ্যে দু’টি চেম্বারের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়নে অনেকগুলো মতবিনিময় ও প্রতিনিধি বিনিময় হয়েছে।

তিনি বলেন, এবারের সিলেট সফরের উদ্দেশ্য হচ্ছে যুক্তরাজ্যের পোর্টসমাউথ শহরের সঙ্গে সিলেটের ‘টুইন সিটি’ চুক্তি স্বাক্ষর। এ চুক্তির মাধ্যমে সিলেট শহরের অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

তিনি উল্লেখ করেন, এ চুক্তির আওতায় সিলেট শহরের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, যোগাযোগ ব্যবস্থা, শিক্ষা, ব্যবসা-বাণিজ্য, ভিসাপ্রাপ্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে সহযোগিতা দেবে যুক্তরাজ্যের পোর্টসমাউথ সিটি কর্তৃপক্ষ।

মাহবুব নুর ম্যাবস বলেন, এ ব্যাপারে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গে আমাদের ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আগামী নভেম্বরে পোর্টসমাউথ সিটি কাউন্সিলের একটি প্রতিনিধি দল সিলেট সফর করবে।

এসময় তিনি এই চুক্তি স্বাক্ষরে সিলেট চেম্বারের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

সিলেট চেম্বারের প্রশাসক আসাদ উদ্দিন আহমদ ওয়েলস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, সিলেটের সামাজিক উন্নয়নে সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সহযোগিতা সর্বদা অব্যাহত থাকবে। তিনি এ মহৎ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য ওয়েলস-বাংলাদেশ চেম্বারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সফল হয়েছে। তিনি ওয়েলসে বসবাসরত বাঙালিদের সিলেটে নির্মাণাধীন অর্থনৈতিক অঞ্চল, সিলেট হাইটেক পার্ক এবং সিলেটের পর্যটন, শিক্ষা ও আইটি খাতে বিনিয়োগের আহবান জানান।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) পরিচালক ও সিলেট চেম্বারের সাবেক সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ, সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি জিয়াউল হক, লায়েছ উদ্দিন, সাবেক সহ সভাপতি এমদাদ হোসেন, সাবেক পরিচালক পিন্টু চক্রবর্তী, এহতেশামুল হক চৌধুরী, চন্দন সাহা, আব্দুর রহমান (জামিল), বশিরুল হক, হুমায়ুন আহমেদ, প্রতিনিধি দলের সদস্য বাবুল সিদ্দিকী, এমরান মফিজ, এসএম সালাহ উদ্দিন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০১৯
এনইউ/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সিলেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-11 21:36:53