bangla news

রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি থেকে চট্টগ্রামের যান চলাচল বন্ধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-০৮ ১০:৩১:১৪ পিএম
কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে ডুবে গেছে সড়ক। ছবি: বাংলানিউজ

কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে ডুবে গেছে সড়ক। ছবি: বাংলানিউজ

রাঙামাটি: রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় গত কয়েকদিনের টানা ভারী বর্ষণের কারণে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া ভারী বর্ষণে কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে লংগদু ও খাগড়াছড়ির মেরুং-দীঘিনালার আভ্যন্তরীণ সড়ক ডুবে যাওয়ায় ওইসব এলাকা থেকে বন্ধ রয়েছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের যোগাযোগ। তবে পাহাড় ধসে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও আতঙ্কে রয়েছেন পাহাড়ে বসবাসকারীরা।

উপজেলা প্রশাসন পাহাড়ি এলাকাগুলোতে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে আশ্রয় নেওয়ার জন্য জোর তাগিদ দিচ্ছে ওইসব এলাকায় বসবাসকারী বাসিন্দাদের।

সোমবার (৮ জুলাই) খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, উপজেলার আটারকছড়া ইউনিয়নের বামেছড়া মোড় ও মুরব্বি ক্লাব সংলগ্ন জায়গায় পাহাড়ের মাটি ধসে সড়কের ওপর এসে পড়েছে। অপরদিকে, তেঁতুলতলা এলাকায় বন্যার পানিতে সড়ক ডুবে বন্ধ রয়েছে সব ধরনের যান চলাচল।

শান্তি পরিবহনের লংগদুর বাইট্টাপাড়া স্টেশনের টিকিট কাউন্টার কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বাবু বাংলানিউজকে জানান, হ্রদের পানি বাড়ায় ও পাহাড় ধসে সোমবার রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সকাল থেকে লংগদু ও মেরুং-দীঘিনালার আভ্যন্তরীণ সড়ক দিয়ে ছেড়ে যায়নি কোনো দূরপাল্লার যানবাহন বা কোনো স্টেশনেও আসেনি যানবাহন। 

লংগদু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইএনও) প্রবীর কুমার রায় এবং আটারকছড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমাসহ স্থানীয় প্রশাসন বামেছড়া এলাকায় সড়কের ওপর পাহাড় ধসে পড়া স্থান ও তেঁতুলতলায় বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া সড়ক পরিদর্শন করেছেন। 

ইউএনও প্রবীর বাংলানিউজকে জানান, বৃষ্টি কমলেই এলাকাবাসীদের নিয়ে সড়ক থেকে মাটি সরানোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অতি ভারী বর্ষণের কারণে পাহাড় ধসের আশঙ্কা রয়েছে। 

পাহাড়ের আশপাশে বসবাসরত সবাইকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকার জন্য আহ্বান জানিয়ে কোথাও পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনকে জানাতে বলা হয়েছে বলেও যোগ করেন ইউএনও প্রবীর কুমার রায়। 

বাংলাদেশ সময়: ২২২২ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   পাহাড় ধস রাঙামাটি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-08 22:31:14