ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মাঘ ১৪২৭, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

‘সহজে বিল পাস হলে সে পার্লামেন্ট পাওয়ারফুল মনে করি না’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৭ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১৯
‘সহজে বিল পাস হলে সে পার্লামেন্ট পাওয়ারফুল মনে করি না’ সিপিডি আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে অতিথিরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) সম্মানীয় ফেলো ড. রওনক জাহান বলেছেন, পার্লামেন্টে যদি একটি দল বা এক ব্যক্তির খুব ক্ষমতা থাকে এবং খুব সহজে বিল পাস হয়ে যায়, সেটা আমি খুব পাওয়াফুল ইনস্টিটি‌উশন মনে করি না।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) রাজধানীর একটি হোটেলে সিপিডি আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ড. রওনক জাহান বলেন, পার্লামেন্টকে পাওয়ারফুল দেখতে হলে দেখতে হবে ওখানে ডিসকাশন, ডিবেট কী রকম হচ্ছে।

স্ট্যান্ডিং কমিটিগুলো ভালো কাজ করছে কিনা। আমরা বহু বছর ধরে (যারা পার্লামেন্ট নিয়ে কাজ করি) বলছি, পার্লামেন্টারি কমিটিতে বাজেট ডিসকাশন করা হয় না। বাজেট এক-দুই সপ্তাহ আলোচনা না করেই পাস হয়।

তিনি আরও বলেন, আমেরিকায় একটা কথা উঠেছিল। নো ট্যাক্সেশন উইথাউট প্রেজেন্টেশন। পার্লামেন্টে তাদের প্রথম কাজ বাজেট নিয়ে তারা ভালো আলোচনা করবে এবং এক্সিকিউটিভ কমিটিতে কোনো রিসোর্স দিবে না। পার্লামেন্টের ক্ষমতা এটা নয়, যে আমি চট করে একটি বিল পাস করে দিলাম। এগুলো দেখে আমি বলতে পারবো না আমাদের পার্লামেন্ট একটি শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান।

সিপিডির সম্মানীয় এ ফেলো বলেন, আমাদের দেশে অর্থনৈতিক গবেষণার জন্য অনেক সহায়তা দেওয়া হয়। কিন্তু রাজনৈতিক গবেষণার জন্য সরকারি-বেসরকারি ও বিদেশি কোনো সহায়তা পাওয়া যায় না। বরং কোনো বিষয়ে তথ্য আনতে গেছে, তার পেছনে পুলিশ লেগে যায়।

সিপিডির চেয়ারম্যান ড. রেহমান সোবহানের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন, সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী, রাশেদ খান মেনন, নগরবিদ তোফায়েল আহমেদ, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সিপিডির সম্মানীয় ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন, গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৫ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১৯
এসই/এইচএডি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa