bangla news

প্রতি বছর বাজেটের আকারের সঙ্গে ঘাটতিও বেড়েছে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-২৪ ৯:৪৩:৩৮ পিএম
জাতীয় সংসদ ভবন

জাতীয় সংসদ ভবন

জাতীয় সংসদ ভবন থেকে: প্রতি বছর বাজেটের আকার বেড়েছে, সেই সঙ্গে ঘাটতিও বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য আব্দুস সাত্তার ভুইয়া। এই বাজেট বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সোমবার (২৪ জুন) জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ দিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। এ সময় ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

আব্দুস সাত্তার ভুইয়া বলেন, বাজেট কতোটা জনকল্যাণমুখী তা নিয়ে সন্দেহ আছে। প্রতি বছর বাজেট বেড়েছে, তার সঙ্গে ঘাটতিও বেড়েছে। ঋণের পরিমাণও বেড়েছে। রাজস্ব আদায় হচ্ছে না। এই বাজেট বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জে পড়তে হবে। 

দেশে বিনিয়োগ বাড়েনি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিনিয়োগ না বাড়লে কর্মসংস্থান হবে না। কর্মসংস্থান না হলে রাজস্ব আদায় হবে না। বাজেটের ঘাটতি মেটাতে সঞ্চয়পত্রের উৎসেকর দ্বিগুণ করা হয়েছে। সমতলের আদিবাসীদের সুনির্দিষ্ট কোনো বরাদ্দ নেই। এই বাজেট ধনীকে আরও ধনী এবং গরিবকে আরও গরিব বানাবে। 

নেত্রী খালেদা জিয়ার নিশর্ত মুক্তি দাবি করে বিএনপির এ সংসদ সদস্য বলেন, একজন আইনজীবী হিসেবে আমি দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, যে মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছে তা জামিনযোগ্য। কিন্তু শুধুমাত্র প্রতিহিংসাবশত জামিন দিয়েও আবার আটক করা হচ্ছে, যা অমানবিক। 

আমরা দাবি জানাই বিএনপি নেতাকর্মীদের সব গায়েবি মামলা প্রত্যাহার করার। গণতন্ত্রের জন্য স্পেস দিতে হবে। সরকারের শরিকদলগুলোও এখন বলতে শুরু করেছে স্পেস দিতে হবে, বলেন আব্দুস সাত্তার ভুইয়া।  

** যোগ্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত

বাংলাদেশ সময়: ২১৪১ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৯ 
এসকে/জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংসদ অধিবেশন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-24 21:43:38