ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ জুলাই ২০১৯
bangla news

শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৯ ১০:৫১:৩১ পিএম
১৮তম চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশনে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানসহ অন্যরা

১৮তম চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশনে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানসহ অন্যরা

ঢাকা: সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জীবনমানের উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।

বুধবার (১৯ জুন) রাজধানীর ব্রাক সেন্টারে অনুষ্ঠিত ১৮তম চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশনে ‘কাউকে পিছনে না ফেলে, সবাইকে সঙ্গে নিয়ে’  শীর্ষক  চাইল্ড পার্লামেন্টে শিশুদের প্রশ্নোত্তরে মন্ত্রী একথা বলেন। 

তিনি বলেন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, বিশুদ্ধ পানি ও পয়ঃনিষ্কাশনসহ সব বিষয় সমাধানে আমরা কাজ করছি। নতুন করে প্রাথমিক বিদ্যালয় যেখানে হচ্ছে সেখানে নতুন পরিবেশ তৈরি করতে চেষ্টা করছি। এসব বিদ্যালয়গুলোতে মেয়েদের জন্য আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ছি। এক্ষেত্রে পর্যায়ক্রমে সব বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ সরবরাহ করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, বাল্যবিবাহ ভয়ঙ্কর সমস্যা। আমরা এর জন্য আইন করেছি। সবাই মিলে কাজ করলে এই সমস্যার সমাধান হবে।
 
সড়ক ও যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা পর্যায়ক্রমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের চলাচলের জন্য রাস্তা নির্মাণ করবো। এছাড়া হাসপাতালগুলোতে মানুষ ভালো ব্যবহার পায় না, সে বিষয়গুলো আমরা লক্ষ্য রাখবো।

মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যগত সমস্যার ব্যাপারে সরকার সচেতন রয়েছে। স্বাস্থ্য সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করে দেশ পরিচালনা করতে চাই, যেখানে সব মানুষ নিরাপদে বসবাস করতে পারে।
 
১৫ জেলার ১৬টি সুবিধাবঞ্চিত প্রান্তিক অঞ্চলের শিশুরা মোট ৩২ জন শিশু প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে এবারের চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। সেভ দ্য চিলড্রেন বাংলাদেশ, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির সহযোগিতায় প্রতিবছরের মতো এ বছরেও অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এবারের চাইল্ড পার্লামেন্টে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।
 
অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন প্লান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ওরালা মারফী, ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর লরা ক্রিয়াডো এবং চাইল্ড রাইটস অ্যান্ড প্রটেকশন বিভাগের প্রধান তানিয়া নুসরাত জামান।   
 
চাইল্ড পার্লামেন্টের স্পিকার মারিয়াম আক্তার জ্বীম বলেন, এটি চাইল্ড পার্লামেন্টের ১৮তম অধিবেশন। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনাতে সুবিধাবঞ্চিত অঞ্চলের উপর সরকার বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা আমাদেরকে অর্জন করতে হলে, এই বিশেষ সুবিধাবঞ্চিত ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন করতে হবে।

চাইল্ড পার্লামেন্টের অংশ নিয়ে শিশুরা তাদের এলাকার শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, বাল্যবিবাহ  যোগাযোগ সমস্যাসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে। 

খুলনার কয়রার আনিকা ইসলাম তারকা চিহ্নিত প্রশ্ন চার উপস্থাপন করে বলে, সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী আমার এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য কারিগরি শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করতে হবে। 

অধিবেশনে খাগড়াছড়ির সোনামণি ত্রিপুরা বলে, আমাদের খাগড়াছড়িতে নিরাপদ সুপেয় পানির অভাব। তাই নিরাপদ সুপেয় পানি ব্যবস্থা করার দাবি জানাই। 

অধিবেশনে হবিগঞ্জের আয়েশা তারকা চিহ্নিত প্রশ্ন তিন উপস্থাপন করে। এ শিক্ষার্থী তার অঞ্চলে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও হাসপাতাল নির্মাণের দাবি সংসদে উপস্থাপন করে।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫০ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১৯
এসএমএকে/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-19 22:51:31