bangla news

বরিশালে যুবককে কুপিয়ে জখম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৯ ৬:০৫:৪৭ এএম
শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তারক চন্দ্র গুহ। ছবি: বাংলানিউজ

শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তারক চন্দ্র গুহ। ছবি: বাংলানিউজ

বরিশাল: বরিশাল নগরের ফকিরবাড়ি রোড এলাকায় তারক চন্দ্র গুহ (৩০) নামে এক যুবককে এলোপাথাড়ি কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) দিনগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত তারক বরিশালের রাখাল বাবু সড়কের মৃত কৃষ্ণ চন্দ্র গুহের ছেলে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ওই যুবকের বাম হাত এবং ডান হাতের বৃদ্ধা আঙ্গুল পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া ডান ও বাম পায়ের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।

অর্থোপেডিক্স ওয়ার্ডের অপারেশন থিয়েটারের দায়িত্বরতরা জানান, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তারক চন্দ্র গুহের ডান হাত কবজির নিচ থেকে রগসহ বিচ্ছিন্ন হয়ে মাংসের সঙ্গে ঝুলে গেছে। পাশাপাশি ডান হাতের বৃদ্ধা আঙুলটিও প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। বরিশালে যতোটুকু সম্ভব হয়েছে তার চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এখন যেমন রক্তের প্রয়োজন রয়েছে, তেমনি তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তারককে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

 

রাত ১টায় বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, আহত সূত্রে যতটুকু জানা গেছে, চারজন যুবক মিলে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। ফকির বাড়ি রোডের শিক্ষক সমিতি ভবনের সামনে বসে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, চারজনের মধ্যে একজনের নাম জানা গেছে, তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।  ওই হামলাকারী গ্রেফতার হলে বাকী তিনজনের পরিচয় পাওয়া যাবে। তবে কি কারণে এ হামলা তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এদিকে আহতের বোন শিল্পী বলেন, দেড় বছর আগে তারক চন্দ্র গুহ ঢাকা থেকে বরিশালে আসেন। ঢাকায় চাকরি করলেও এখানে বেকারভাবে দিন পার করিছলেন। রাতে পুলিশের কাছ থেকে জানতে পেরে স্বজনরা হাসপাতালে আসেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৫৮ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১৯
এমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বরিশাল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-19 06:05:47