ঢাকা, বুধবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৪ জুলাই ২০১৯
bangla news

সড়কের পাশে ট্রাকভর্তি ১৫০ বস্তা চালের মালিক কে?

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৮ ৯:২৯:৩৫ পিএম
শরণখোলায় সড়কের পাশে ট্রাকভর্তি চাল পড়ে আছে/ছবি: বাংলানিউজ

শরণখোলায় সড়কের পাশে ট্রাকভর্তি চাল পড়ে আছে/ছবি: বাংলানিউজ

বাগেরহাট: বাগেরহাটের শরণখোলায় সড়কের পাশে দু’দিন ধরে ট্রাকভর্তি চাল পড়ে রয়েছে। প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, চাল ব্যবসায়ী কেউই চালের মালিকানা দাবি করছে না। ট্রাকভর্তি ১৫০ বস্তা চাল নিয়ে নানা ধরনের গুঞ্জন চলছে স্থানীয়দের মধ্যে।

সোমবার (১৭ জুন) রাতে উপজেলা থেকে একটি ট্রাকভর্তি (ঢাকা মেট্রো ট- ১৪৪১৫৬) চাল নিয়ে পাঁচ রাস্তা মোড় এলাকা থেকে যাচ্ছিল চালক। স্থানীয়রা সরকারি চাল বলে বাধা দিলে চালকসহ ট্রাকে থাকা লোকজন পালিয়ে যায়। এরপর থেকে ট্রাকসহ চালগুলো রাস্তার পাশেই পড়েছিল।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সারাদিন এ চাল নিয়ে বিভিন্ন ধরনের গুঞ্জন চলতে থাকে স্থানীয়দের মধ্যে। এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লিংকন বিশ্বাসের হস্তক্ষেপে সন্ধ্যায় ট্রাকভর্তি চালগুলো বর্তমানে ধানসাগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম টিপুর তত্ত্বাবধায়নে রাখা হয়েছে।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার সরকার জানান, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। চালগুলো নিরাপদ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ চালগুলোর মালিকানা দাবি করেনি। সরকারি কোনো দফতরের চাল বা কোথা থেকে আসছে তারও সঠিক তথ্য আমরা পাইনি। তবে চালের বস্তাগুলোতে তীর সুগার লেখা রয়েছে।

ইউএনও লিংকন বিশ্বাস জানান, সড়কের পাশে ট্রাকভর্তি চাল পড়ে রয়েছে জানতে পেরে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আব্দুল হাই ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন। বর্তমানে চালগুলো ধানসাগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম টিপুর তত্ত্বাবধায়নে রাখা হয়েছে। অধিকতর তদন্ত করে দেখা হবে, আসলে চালগুলো সরকারি কিনা। চালগুলো যদি সরকারি হয় তাহলে কোন দফতরের চাল, কাদের দেওয়ার জন্য নির্ধারিত ছিল সেটা জেনে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর যদি কোনো ব্যক্তি মালিকানার চাল হয়, তাহলে সঠিক প্রমাণ দিতে পারলে আমরা তাকে চাল ফেরত দিয়ে দিব।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৪ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১৯
এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চাল বাগেরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-18 21:29:35