ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ জুলাই ২০১৯
bangla news

ব্রিজ না থাকায় দুর্ভোগে ১০ গ্রামের ৫ হাজার মানুষ 

বদরুল আলম, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৭ ৯:০০:৪১ এএম
চুনারুঘাটে ব্রিজের অভাবে পানি ভেঙে চলাচল করছে কোমলমতী শিক্ষার্থীরা

চুনারুঘাটে ব্রিজের অভাবে পানি ভেঙে চলাচল করছে কোমলমতী শিক্ষার্থীরা

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সাটিয়াজুরী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শ্রীবাড়ি চা বাগান পর্যন্ত রাস্তায় ২০ ফুট জায়গায় একটি ব্রিজ না থাকায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন ১০টি গ্রামের অন্তত ৫ হাজার মানুষ। পানি ভেঙেই তাদের প্রতিনিয়ত যাতায়াত করতে হচ্ছে।

গত বছর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার করাঙ্গী নদীর বাঁধের উপরের রাস্তাটি দিয়ে কৃষ্ণপুর, কুনাউড়া, টিলাগাঁও, কাজির খীল, ছিলমী, সিরাজনগর, সাটিয়াজুরীসহ ১০টি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত চলাচল করেন। 

গত বছর বর্ষাকালে কৃষ্ণপুর এলাকায় প্রায় ২০ ফুট এলাকা ভেঙে এলাকার ভেতর পানি প্রবেশ করতে থাকে। এতে কুনাউড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দ্বারাগাঁও ইসমাইল মুন্সী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীর চলাচলে দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। পানি ভেঙেই যাতায়াত করছেন তারা। বিষয়টি নিয়ে বার বার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের স্মরণাপন্ন হলেও এর প্রতি নজর দিচ্ছেন না কেউ।

স্থানীয় কাজী মাহমুদুল হক সুজন বাংলানিউজকে জানান, গত বছর ভাঙা জায়গাটি পরিদর্শন করে তাৎক্ষণিকভাবে ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছিলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। টাকা কোথায় গেছে এরও কোনো হদিস নেই।

দ্বারাগাঁও ইসমাইল মুন্সী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুর রহমান চৌধুরী জানান, রাস্তাটি ভাঙা থাকায় এলাকার শিক্ষার্থীরা নিয়মিত ক্লাসে অংশ নিতে পারছে না। শিগগির এ ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।

কুনাগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিম বাংলানিউজকে জানান, কোমলমতি শিক্ষার্থীরা জামা-কাপড় ভিজিয়ে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করছে। এছাড়া যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। মাত্র ২০ ফুট জায়গায় ছোট একটি ব্রিজ নির্মাণ হলেই দুর্ভোগ কমে যেত, সেটাই হচ্ছে না বলে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

চুনারুঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মঈন উদ্দিন ইকবাল বাংলানিউজকে জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৫৮ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০১৯ 
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   হবিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-17 09:00:41