bangla news

কাজের বিল পেতে সড়কে গর্ত করলেন ইউপি সদস্য

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৩ ৫:০৭:১৫ এএম
বাগাতিপাড়ায় কাজের বিল পেতে সড়কে গর্ত করলেন ইউপি সদস্য। ছবি: বাংলানিউজ

বাগাতিপাড়ায় কাজের বিল পেতে সড়কে গর্ত করলেন ইউপি সদস্য। ছবি: বাংলানিউজ

নাটোর: নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় স্থানীয় সরকার সহায়তা প্রকল্পের (এলজিএসপি) নির্মাণ কাজের বিল পেতে সড়কের মাঝখানে গর্ত করে যানবাহন চলাচল বন্ধ করেছেন এক ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য।

মঙ্গলবার (১১ জুন) উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের চকগোয়াশ কুলপাড়া এলাকায় এমন ঘটনা ঘটিয়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন স্থানীয় ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য  মো. মকবুল হোসেন বাদশা। 

তবে ইউপি সদস্য বাদশার দাবি নির্মিত সড়কের কাজের চূড়ান্ত পরিদর্শন শেষ না হতেই ১০ চাকা বিশিষ্ট ভারী যানবাহন চলাচল করায় এ ক্ষতি হয়েছে। এতে জামানতসহ তার কাজের বিল না পাওয়ার শঙ্কা রয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। 

সরেজমিনে দেখা যায়, বাগাতিপাড়া উপজেলার সাদিমারা বটতলা-স্বরাপপুর রেলগেট থেকে চকগোয়াশ কুলাপাড়া গ্রামের মধ্যে ওই রাস্তাটি প্রবেশ করেছে। কিছুদিন আগে রাস্তাটির কিছু অংশ এইচবিবি করণ করা হয়েছে। পূর্বদিকে রাস্তার শেষাংশের মাঝখানে মাটি খুঁড়ে প্রায় তিন ফুট গর্ত করা হয়েছে। এতে যান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। তবে পাশের একটি সড়ক সংস্কারের কাজে বালি বোঝাই ভারী যানবাহন চলাচলের কারণে বেশকিছু স্থানে দেবে গিয়ে রাস্তাটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বাগাতিপাড়া উপজেলা পরিষদ কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের এলজিএসপি- এর আওতায় উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের চকগোয়াস কুলপাড়ায় ৫৭ দশমিক ৮ মিটার সড়ক নির্মাণ কাজ বাস্তবায়নে দেড় লাখ টাকা বরাদ্দ  দেওয়া হয়। এ কাজটি বাস্তবায়ন করেন ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বাদশা।

প্রায় তিনমাস আগে সড়কের নির্মাণ কাজ শেষ হলেও চূড়ান্ত পরিদর্শনের অপেক্ষায় আছে সড়কটি। আর এ পরিদর্শন শেষ হলেই কাজের বিল ও জামানতের অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন ওই ইউপি সদস্য। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, নির্মিত  গ্রামীণ এ সড়কে ঠিকাদার লোকজন দিয়ে মাটি খুঁড়ে গর্ত করায় সড়কটি দিয়ে কোনো ধরনের যান চলাচল করতে পারছে না। ফলে পায়ে হাঁটা ছাড়া কোনো যানবাহন নিয়ে ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করতে না পারায় দুর্ভোগে পড়েছেন তারা। 

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য মকবুল হোসেন বাদশা বাংলানিউজকে বলেন, নির্মিত এ সড়ক দিয়ে ভারী যান চলাচল করার কোনো নিয়ম নেই। অথচ পাশের একটি সড়কের কাজের জন্য ১০ চাকা বিশিষ্ট বালি বোঝাই গাড়ি ওই সড়কের ওপর দিয়ে চলাচল করায় এমনটি হয়েছে।

তিনি বলেন, ওই সড়ক দিয়ে ভারী যান চলাচল করতে নিষেধ করা হলেও তা মানা হচ্ছে না। এছাড়াও লাল পতাকা দেওয়া হলে তারও তোয়াক্কা করেনি তারা। এমনকি বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড সৃষ্টি করার পরও বাঁশ সরিয়ে দিয়ে ভারী যানবাহন মালামালসহ যাতায়াত করছে। কিন্তু নতুন সড়কটি যেহেতু এখনও চূড়ান্ত পরিদর্শন হয়নি। তাই সড়কটিতে গাড়ি চলাচলের ফলে সড়কটি নষ্ট হলে জামানতসহ তার বিল আটকে যেতে পারে। পরিদর্শন হলে ক্ষতিগ্রস্ত সড়কে আবারও তাকে কাজ করতে হতে পারে। এতে তিনি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। তাই ওই ভারী যান চলাচল বন্ধ করতে তিনি তার কর্মসূচির লোক দিয়ে গর্তটি করেছেন বলে জানিয়েছেন। তবে তিনি তার লোকজনকে পাশ দিয়ে ভ্যান যাতায়াতের জায়গা রেখে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধের জন্য গর্ত করতে বললেও তারা বেশি পরিমাণ গর্ত করেছেন। 

পাঁকা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তাকে (ইউএনও) জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে ইউপি সদস্য বাদশাকে সড়ক মেরামতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রিয়াংকা দেবী পাল বাংলানিউজকে বলেন, সড়কে গর্ত করার বিষয়টি তিনি জেনেছেন। দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

নাটোর লোকাল এলজিএসপি-৩ এর ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটিটর আকতারুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। 

বাংলাদেশ সময়: ০৫০৫ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০১৯
আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-06-13 05:07:15