ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

মহাত্মা গান্ধী পরিবেশ ও নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করেছেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১২ ৬:১৫:৫০ পিএম
বক্তব্য রাখছেন ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ, পাশে সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরীসহ অতিথিরা। ছবি: ডিএইচ বাদল

বক্তব্য রাখছেন ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ, পাশে সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরীসহ অতিথিরা। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: ভারতের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধীর সার্ধশততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর সবুজবাগে বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন। 

বুধবার (১২ জুন) আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, মহাত্মা গান্ধী রাজনীতির বাইরে পরিবেশের জন্য অনেক কাজ করে গেছেন, লিখে গেছেন। সেটা অনেক সময় পেছনে থেকে যায়। মহাত্মা গান্ধী বর্ণিত নারীর ক্ষমতায়ন ও পরিবেশ সুরক্ষা, এই দু’টি বিষয়ে আমরা বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছি। পরিবেশ বিষয়ে গান্ধীজির উক্তি আজকের দিনে তার জীবিতকালের চেয়েও বেশি প্রাসঙ্গিক। অতএব, আমাদের উচিত এই পৃথিবীকে আরও সবুজ ও বাঁচার উপযোগী করে গড়ে তোলার জন্য কাজ করা।রোপিত গাছের চারায় পানি দিচ্ছেন ভারতীয় হাকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। ছবি: ডিএইচ বাদলঅনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, শুধু ভারত নয়, মহাত্মা গান্ধী একজন বিশ্বনেতা। অহিংস সংস্কৃতি ও প্রতিবাদের যে নমুনা তিনি সৃষ্টি করে গেছেন, তা সারাবিশ্বের জন্য একটি অনুপ্রেরণা। সেই মহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আমাদের এলাকায় যে চিহ্নটি রাখতে পারছি, তার জন্য আমরা সবাই আনন্দিত, গর্বিত। বাংলাদেশে বছরব্যাপী এই কার্যক্রম চালু রাখার জন্য ভারত সরকারকে ধন্যবাদ।

বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো বলেন, আমি ৮০ বছর ধরে এই সংঘের সঙ্গে আছি। এই সংঘের সঙ্গে আমার জীবন-মরণের সম্পর্ক। আমি অসুস্থ হওয়ার পর সাবের হোসেন চৌধুরী আমার চিকিৎসার পুরো ব্যয় বহন করেছেন। স্কুলের জন্য অর্থ সহায়তা দেন। সংঘের স্কুলটি সংস্কার ও বহুতল ভবন নির্মাণের পুরো অর্থ দিয়েছে ভারতীয় হাইকমিশন। আমার চিকিৎসার জন্যও সহায়তা করে হাইকমিশন। স্কুলটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে ভবিষ্যতে এখানে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত পাঠ্যক্রম চালু করার চিন্তা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৭ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০১৯
এসই/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-12 18:15:50