bangla news

শ্যামপুরে সুয়ারেজ লাইনে বিস্ফোরণ, শিশুর মৃত্যু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১১ ৮:২০:০১ পিএম
ঢামেকে চিকিৎসাধীন দগ্ধ আবির, ছবি: বাংলানিউজ

ঢামেকে চিকিৎসাধীন দগ্ধ আবির, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: রাজধানীর শ্যামপুরে সুয়ারেজ লাইনে জমে থাকা গ্যাস বিস্ফোরিত হয়ে আবির নামে আট বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন শিশুটির মা সাথী আক্তার (৩০), বোন আদিবা (১০)  এবং মো. রুবেল (৩০) নামে এক ভ্যানচালক।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে শ্যামপুর মুন্সিবাড়ি ঢাল পাইপ রাস্তা মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। 

আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসা মাসুদ বাংলানিউজকে জানান, সাথী আক্তার তার দুই শিশুকে নিয়ে জুরাইন থেকে শ্যামপুর পাইপ রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। শিশু দু’টি তার আগে আগে হাঁটছিলো। এমন সময় পাইপ রাস্তার মোড়ে পৌঁছালে নিচে থেকে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তারাসহ আরও এক ভ্যানচালক আহত হয়েছেন।তাৎক্ষণিকভাবে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশু আবিরের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, তিনি সম্পর্কে শিশু দু’টির খালু হন। তাদের বাসা ধোপখোলা মুর্গিটোলা এলাকায়। শিশু দু’টির বাবার নাম সজীব।

শ্যামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, একটি বিস্ফোরণের খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের টেলিফোন অপারেটর আব্দুর রহমান জানান, পাইপ রাস্তার মোড়ে গ্যাসলাইন বিস্ফোরণে ঘটনা ঘটেছে। এতে তিনজন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। ধারণা করা হচ্ছে, সুয়ারেজ লাইনে গ্যাস জমে এ বিস্ফোরণ ঘটেছে।

ঘটনাস্থল থেকে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের (পোস্তগোলার) ইন্সপেক্টর শাহাবুদ্দিন  জানান, সুয়ারেজ লাইনে জমে থাকা বর্জ্যের গ্যাস বিস্ফোরিত হয়ে তিনটি স্লাব উড়ে যায়। এতে চারজন আহত হয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক শিশুর মৃত্যু হয়।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া বাংলানিউজকে জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ৮ টার দিকে শিশু আবির মারা যায়।

বাংলাদেশ সময়: ২০০০ ঘণ্টা, জুন ১১, ২০১৯
এজেডএস/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-11 20:20:01