ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

সামিট ও জিরা-এশিয়ার সমঝোতা স্মারক সই

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-০১ ০১:৩০:২৭ পিএম
সামিট ও জিরা-এশিয়ার সমঝোতা স্মারক সই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে সমঝোতা স্মারক সই।

ঢাকা: ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) এবং ‘রূপরেখা ২০৪১’ অর্জনে-সামিট করপোরেশন এবং জিরা-এশিয়া একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে জাপানের টোকিওতে নিউ ওটানি হোটেলে এ সমঝোতা স্মারক সই হয়।

সামিট গ্রুপের পরিচালক ফয়সাল খান এবং জিরা এশিয়ার সিইও তোসিরো কুদামা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এই সমঝোতা স্মারকটি সই করেন।

সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী, সামিট এবং জিরা-এশিয়া কক্সবাজারের মাতারবাড়ি এলাকায় একটি বৃহৎ জ্বালানি অবকাঠামো প্রকল্প উন্নয়ন করবে যার বার্ষিক মালামাল সরবরাহের ক্ষমতা ২০ মিলিয়ন টন। সামিট, জিরা-এশিয়া এবং বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে সম্পাদিত এই  প্রকল্প চুক্তিটির বাস্তবায়ন আগামী দুই বছরের মধ্যে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে যাতে বিনিয়োগ করা হবে আনুমানিক ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি।

সামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আজিজ খান বলেন, জিরা-এশিয়ার সঙ্গে সামিটের এ প্রকল্পটি আগামী বছরগুলোতে উন্নত সাপ্লাই চেইন এবং হ্যান্ডলিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের বহু বিলিয়ন ডলার সঞ্চয়ের সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচিত করবে, এর মাধ্যমে বাংলাদেশ তার প্রতিটি লক্ষ্য অর্জনে এগিয়ে যেতে সহায়তা করবে।

সমঝোতা স্মারক সইকালে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান, এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক এবং মিডি (মহেশখালি-মাতারবাড়ি ইনটিগ্রেটেড ইনফ্রাস্ট্রকচার ডেভেলপমেন্ট ইনিসিয়াটিভ) এর চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ, জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা এবং সামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আজিজ খান।

বাংলাদেশ সময়: ০৯২৫ ঘণ্টা, জুন ০১, ২০১৯
আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa