bangla news

‘আত্মসাতে’র ভিজিএফ চাল পেলেন সুবিধাভোগীরা 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-৩১ ৫:০৬:১৮ এএম
ভিজিএফ সুবিধাভোগীরা, মাঝে চেয়ারম্যান সিদ্দিক

ভিজিএফ সুবিধাভোগীরা, মাঝে চেয়ারম্যান সিদ্দিক

নেত্রকোণা: নেত্রকোণায় সুবিধাভোগীদের ওজনে ৮-১০ কেজি কম দিয়ে আত্মসাৎ করা ৩৬০০ কেজি (১২০ বস্তা) চাল ভিজিএফ কার্ডধারীদের মাঝে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) বিকেলে জেলার সদর উপজেলার দক্ষিণ বিশিউড়া ইউনিয়নে সংশ্লিষ্টদের কাছে এসব চাল বিতরণ করা হয়। ওজনে কম দিয়ে ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক ভিজিএফের বিপুল পরিমাণ চাল আত্মসাৎ করেন।

এ নিয়ে এলাকায় ন্যায্য পাওনা বঞ্চিত কার্ডধারীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমনা আল মজীদ। পরে এসব চাল সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণের ব্যবস্থা করেন তিনি। 

বাংলানিউজকে সুমনা জানান, সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসারকে না জানিয়ে চাল বিতরণ শুরু করেন চেয়ারম্যান। সমাজসেবা কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা ট্যাগের দায়িত্বে রয়েছেন।

ইউনিয়নটিতে ভিজিএফ কার্ডধারী উপকারভোগী রয়েছেন ৮২৭ জন; যাদের প্রত্যেকে ভিজিএফের চাল পান। পরবর্তীতে ওজনে কম পাওয়া প্রত্যেককে তাদের প্রাপ্য বাকি চাল ফিরিয়ে দেওয়া হয়। 

পরবর্তীতে এ ধরনের কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্তার অভিযোগ ও সত্যতা পাওয়া গেলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি করা হয়। 

নেত্রকোণা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান জানান, ভিজিএফের চাল কম দেওয়ার বিষয়টিকে কেন্দ্র করে এলাকায় কার্ডধারীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কার্ডধারী শাহজাহান মিয়া, নাজিম উদ্দিন ও ফিরোজ মিয়াসহ কয়েকজন সুবিধাভোগী বাংলানিউজকে অভিযোগ করেন, ট্যাগ অফিসারকে ম্যানেজ করে প্রভাব খাঁটিয়ে চেয়ারম্যান সিদ্দিক আমাদের ঠকিয়ে চাল আত্মসাৎ করেন। তার ভয়ে কিছু বলাও যায় না। 

তারা বলেন, এ নিয়ে বিভিন্ন সময় কিছু বললেও তার ছত্রছায়ার ছেলেপেলেদের দিয়ে হামলাসহ মিথ্যা মামলায় জড়ানোর ভয় দেখানো হয়। 

বাংলাদেশ সময়: ০৪৫৪ ঘণ্টা, মে ৩১, ২০১৯
এমএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   চাল নেত্রকোণা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-31 05:06:18