bangla news

সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ দস্যু নিহত

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৯ ৯:৩৪:৫৫ এএম
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

ঢাকা: সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের জংড়া খালে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দস্যু হাসান বাহিনীর প্রধানসহ চার সদস্য নিহত হয়েছেন। এসময় বিপুল পরিমাণ আগ্নেয় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। 

নিহতরা হলেন- হাসান বাহিনীর প্রধান হাসান (৪০), তার সহযোগী মোস্তাঈন (৩৭), মাইনুল (৩৫) এবং হায়দার (৪৪)। তবে নিহতদের ঠিকানা জানাতে পারেনি র‌্যাব।

বুধবার (২৯ মে) দুপুরে মরদেহ ও উদ্ধার হওয়া অস্ত্র-গুলি খুলনার দাকোপ থানায় হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। এরআগে মঙ্গলবার (২৮ মে) দিনগত রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

র‌্যাব-৮ এর লিগ্যাল অফিসার তাজুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, মঙ্গলবার রাতে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের জোংড়ার খাল এলাকায় র‌্যাব টহলের সময় দস্যু বাহিনী র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। পরে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়ে। পাঁচ ঘণ্টা ‘বন্দুকযুদ্ধের’ একপর্যায়ে দস্যুরা পিছু হটে যায়। পরে ওই এলাকা থেকে চার দস্যুর নিথর দেহ উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, টহল দল পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে একটি এয়ারগান, দু’টি বন্দুক, তিনটি ওয়ান শুটার গান, পাঁচটি পাইপগান ও দেশীয় ধারালো অস্ত্রসহ প্রচুর পরিমাণ গুলি উদ্ধার করে। এছাড়া দস্যুদের ব্যবহৃত কাপড় এবং আস্তানায় রক্ষিত বিপুল পরিমাণ রশদ সামগ্রী ও তৈজসপত্র উদ্ধার করা হয়।

দাকোপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, র‌্যাবের পক্ষ থেকে চার জনের মরদেহ, অস্ত্র ও বেশকিছু রশদ হস্তান্তর করা হয়েছে। দস্যুদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৩৩ ঘণ্টা, মে ২৯, ২০১৯/ আপডেট সময় ১৪০৫ ঘণ্টা
পিএম/জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বন্দুকযুদ্ধ সুন্দরবন বাগেরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-05-29 09:34:55