bangla news

টাঙ্গাইলে এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনায় ৮ পুলিশ প্রত্যাহার 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৫ ৬:৪০:২৪ পিএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের গোপালপুরে তাসের আড্ডায় পুলিশি অভিযানের সময় এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনায় উপ পরিদর্শকসহ (এসআই) আট পুলিশকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। 

এছাড়া ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান আল মামুন জানান, ঝাওয়াইল ইউনিয়নের ঝাওয়াইল টেকটিক্যাল কলেজ মাঠে কিছু লোক টাকার বিনিময়ে তাস খেলছিল এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এসময় সেখান থেকে চারজনকে আটক করা হয়। দু’জন দৌড়ে পালায়। আটকদের নিয়ে পুলিশ চলে আসে। পরে খবর পাওয়া যায় যে দৌড়ে পালানো আব্দুল হাকিম (৫০) নামক একজন মারা গেছে। আব্দুল হাকিম পেশায় মাংস ব্যবসায়ী ছিলেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ পুলিশ একটি মাইক্রোবাস নিয়ে সাদা পোশাকে সেখানে গিয়ে তাদের সবাইকে ধরে ফেলে। পরে প্রত্যেককে চরথাপ্পর ও লাথি মারে। এতে আব্দুল হাকিম অসুস্থ হয়ে ঢলে পড়ে। পরে পুলিশ তাকে ফেলে চারজনকে নিয়ে চলে যায়। 

ঝাওয়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে আব্দুল হাকিমকে মাঠে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে আরো কয়েকজনের সহায়তায় তিনি (চেয়ারম্যান) হাকিমকে উদ্ধার করে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পর দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আব্দুল হাকিমের মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মানুষ বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। ইফতারের পর কয়েকশ’ মানুষ গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে ভিড় করে। তারা পুলিশের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। একপর্যায়ে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। 

রাত ১০টার দিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ওরফে ছোট মনির, টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম গোপালপুরে যান। তারা বিক্ষোভকারীদের দাবিগুলো শোনেন। পরে পুলিশ সুপার ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ তুলে নেয়। 

পুলিশ সূত্র জানায়, এ ঘটনা তদন্তের জন্য টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদুর রহমান মনিরকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন জেলা বিশেষ শাখার ডিআই-১ হারেস আলী মিয়া ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (উত্তর) সাজ্জাত হোসেন। 
কমিটিকে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। 

এদিকে ঝাওয়াইলের ওই অভিযানে থাকা পুলিশের আটজনের প্রত্যেককে থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এরা হলেন- উপ পরিদর্শক (এসআই) আবু তাহের, সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) আশরাফুল আলম এবং কনস্টেবল ফরিদ আহমেদ, গোলাম মোস্তফা, খায়রুল ইসলাম, সালমান সাদিক, সাদ্দাম হোসেন ও আব্দুস ছাত্তার। 

শনিবার দুপুরে আব্দুল হাকিমের ময়নাতদন্ত টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হয়েছে। হাকিমের মৃত্যুর ঘটনায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। তবে ঝাওয়াইলের জুয়ার আড্ডা থেকে আটকদের বিরুদ্ধে উপ পরিদর্শক আবু তাহের বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৭ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   টাঙ্গাইল পুলিশ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-25 18:40:24