ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ জুন ২০১৯
bangla news

লোহাগড়ার ইতনা গণহত্যা দিবস

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৩ ৩:৪৮:১০ পিএম
৩৯ জনের ‘নামফলক’

৩৯ জনের ‘নামফলক’

নড়াইল: ১৯৭১ সালের ২৩ মে ভোরের দিকে লোহাগড়া উপজেলার ইতনা গ্রামে ৩৯ মুক্তিকামী মানুষকে গুলি চালিয়ে হত্যা করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। তারা বাড়ি-ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। বিষাদময় সেই দিনের কথা মনে পড়লে আজও এ অঞ্চলের মানুষ আতকে উঠেন। চোখের জলে বুক ভাসান স্বজনেরা।

ইতনা গণহত্যার স্মরণে বৃহস্পতিবার (২৩ মে) পারিবারিকভাবে এবং গ্রামবাসীর আয়োজনে কবর জিয়ারত ও দোয়া মাহফিলের অনুষ্ঠিত হয়। 

গণহত্যার শিকার আতিয়ার শেখের পরিবারের সদস্যরা জানান, ২৩ মে সরকারি উদ্যোগে কোনো কর্মসূচি পালন করা হয় না। এছাড়া কবরগুলো চিহ্নিতকরণসহ কোনো স্মৃতিস্তম্ভ নির্মিত হয়নি। তবে ইতনা গণগ্রন্থাগারের পরিকল্পনায় এবং শেখ সিরাজ ইশতিয়াক আফছার উদ্দিন ট্রাস্টের সহযোগিতায় ১৯৯৪ সালের ২৩ মে ইতনা স্কুল ও কলেজের পাশে ৩৯ জনের ‘নামফলক’ স্থাপিত হয়।

এলাকাবাসী ও বিশিষ্টজনদের কাছ থেকে জানা যায়, ১৯৭১ সালের ২৩ মে হত্যাযজ্ঞের শিকার হয়েছেন ইতনা গ্রামের শেখ হাফিজুল হক হিরু মিয়া, সৈয়দ শওকত আলী, সৈয়দ কাওছার আলী, সৈয়দ এসমত আলী, সৈয়দ মোশাররফ আলী, শেখ তবিবর রহমান তবি, শিকদার ওয়ালিয়ার রহমান, শিকদার হাবিবুর রহমান, মোল্যা মকলেসুর রহমান, রাশেদ গাজী, বাদল শেখ, বানছারাম মন্ডল, হারেজ ফরির, তরু মিনা, হেমায়েত হোসেন, রবি মোল্যা, আব্দুস সামাদ মোল্যা চুন্নু, পাচু মিয়া খদগির, মতলেব শেখ ওরফে কালমতে, নালু খাঁ, শেখ রফিউদ্দিন লেংটা, নুরুদ্দিন শেখ, কেয়ামদ্দিন ওরফে কিনু ফকির, মির্জা মোবারক হোসেন, নুরু মোল্যা, কুটি মিয়া মোল্যা, কানাই স্বর্ণকার, মোল্যা আব্দুর রাজ্জাক, মোল্যা সফিউদ্দিন আহমেদ, মোল্যা মানসুর আহম্মেদ, মালেক শেখ, শিকদার হাদিয়ার রহমান, নবীর শেখ, ফেলু শেখ, মোহন কাজী ওরফে পাগলা কাজী, আতিয়ার শেখ, জহির শেখ, ছরোয়ার রহমান লেংটা ও বাকু শেখ। 

এদিকে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে ইতনা গ্রামে আরও ১১ জন শহীদ হয়েছেন। তারা হলেন- শিকদার হেমায়েতুল ইসলাম ধলু, অতুল পাল, পেনু ঘোষ, শেখ আতিয়ার রহমান খোকা, মির্জা রফিকুল ইসলাম, সরদার সামসুর রহমান বাঁশি, মিনা আব্দুর রাজ্জাক, ছরোয়ার রহমান ভূঁইয়া, আতিয়ার রহমান ভূঁইয়া, হাসেম শেখ ও এসএম রেজাউল ইসলাম। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৮ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০১৯
জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   নড়াইল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-23 15:48:10