bangla news

ভুল ইনজেকশন পুশ: এখনো জ্ঞান ফেরেনি সেই শিক্ষার্থীর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২২ ৩:৩৫:৪৬ পিএম
অসুস্থ মরিয়ম সুলতানা মুন্নি। ছবি: বাংলানিউজ

অসুস্থ মরিয়ম সুলতানা মুন্নি। ছবি: বাংলানিউজ

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মরিয়ম সুলতানা মুন্নির অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি। তিনি এখন জীবন-মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়ে খুলনা আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

মঙ্গলবার (২১ মে) গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভুল ইনজেকশন পুশ করায় মরিয়ম সুলতানা মুন্নির এই অবস্থা হয়েছে। তিনি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া গ্রামের মো. মোশারফ হোসেন বিশ্বাসের মেয়ে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে মুন্নির চাচা জাকির হোসেন বিশ্বাস বাদী হয়ে ডা. তপন কুমার মণ্ডল, নার্স শাহানাজ ও কুহেলিকাকে অভিযুক্ত করে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

পিত্ত থলির পাথরজনিত কারণে মুন্নিকে ডাক্তার তপন কুমার মণ্ডলের কাছে দেখানো হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় তার অপারেশন করার দিন ধার্য ছিল। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতারে নার্স ওই মুন্নিকে গ্যাসের ইনজেকশনের পরিবর্তে ভুল করে অজ্ঞান করার ইনজেকশন (এনেসথেশিয়া) পুশ করেন। এসময় তিনি জ্ঞান হরিয়ে ফেলেন।পরে তাকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল থেকে খুলনা আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। 

এ ব্যাপারে গোপালগঞ্জ ২৫০শয্যা হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, বিষয়টি তদন্তের জন্য ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী শনিবার কমিটি তাদের প্রতিবেদন দাখিল করবেন। তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৬ ঘণ্টা, মে ২২, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ভুল চিকিৎসা গোপালগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-22 15:35:46